টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

‘বাপরে কী গন্ধ” সল্টলেকে পুজো উদ্বোধনে মেয়রের সামনেই দুর্গন্ধ নিয়ে সরব হলেন মুখ্যমন্ত্রী

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বাঙালির শ্রেষ্ঠ উৎসব ‘দুর্গাপুজো’-র বেশ কয়েকদিন বাকি থাকলেও গতকাল থেকেই বেশ কয়েকটি পুজো মণ্ডপের উদ্বোধন শুরু করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। শ্রীভূমি, টালা প্রত্যয় এবং সল্টলেকের একটি পুজোর উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী। পরবর্তীতে বেশ কয়েকটি ঘটনা নিয়ে ইতিমধ্যেই বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে।

গতকাল শ্রীভূমির দুর্গা মণ্ডপের উদ্বোধন করতে গিয়ে নিজেকে মানুষের পাহারাদার বলে আখ্যা দেন মুখ্যমন্ত্রী। একইসঙ্গে দুর্গাপুজা উপলক্ষ্যে মন্ত্রী সুজিত বসুর পাশাপাশি আধিকারিকদের উদ্দেশ্যে বেশ কয়েকটি নির্দেশও দিতে দেখা যায় তাঁকে। পরবর্তীতে সল্টলেকের এফডি ব্লকের পুজো উদ্বোধন করতে গিয়ে আচমকাই অতিষ্ঠ হয়ে ওঠেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়! নেপথ্যে ভ্যাটের গন্ধ।

ঘটনার সূত্রপাত কিভাবে? গতকাল তৃণমূল মন্ত্রী সুজিত বসুর সঙ্গে প্রথমেই শ্রীভূমি স্পোর্টিং ক্লাবে পৌঁছে যান মুখ্যমন্ত্রী। এরপরই সেখান থেকে রওনা দেন সল্টলেক এফডি ব্লকের উদ্দেশ্যে। তবে সেখানে পৌঁছে যেতেই ভ্যাটের গন্ধে বিরক্তি প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী। উল্লেখ্য, উক্ত সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিকট উপস্থিত ছিলেন বিধান নগরের মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তী, সুজিত বসু, কাকলি ঘোষ দস্তিদার এবং সব্যসাচী দত্ত। সকলের সামনে মুখ্যমন্ত্রী বলে ওঠেন, “একটি ভ্যাটের গাড়ি দাঁড় করানো রয়েছে। কি গন্ধ! কি গন্ধ, বাপরে বাপ।”

একইসঙ্গে বিধান নগরের মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তীকে উদ্দেশ্য করে মমতা বলেন, “এটা হবে কেন?” এই ঘটনার দরুণ স্বাভাবিকভাবেই অস্বস্তিতে পড়ে যান তৃণমূল বিধায়ক সাংসদ সহ সকল উদ্যোক্তারা। পরবর্তীতে সুজিত বসু উদ্যোক্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, “কালকে সরাতে বলেছিলাম। তা সত্ত্বেও ভ্যাটের গাড়ি এখনো পর্যন্ত দাঁড় করানো রয়েছে কেন?” এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র।

পুজো উদ্যোক্তাদের দাবি, উদ্বোধনের কাজে তারা এতটাই ব্যস্ত হয়ে পড়েন যে, ভ্যাটের দিকে কারোর নজর যায়নি! সম্পূর্ণ ঘটনা প্রসঙ্গে কৃষ্ণা চক্রবর্তী বলেন, “দিদি গন্ধ পেয়েছেন মানে নিশ্চয়ই কিছু ছিল। এই নিয়ে পুজো উদ্যোক্তাদের সঙ্গে কথা বলেছি।” বর্তমানে অবশ্য পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা গিয়েছে বলেই খবর।

Related Articles