‘পায়ে না ধরলে…’! তৃণমূল বিধায়কের ওপর খচে লাল মমতা, ভোটের মধ্যেই সম্পর্ক ছেদ

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ দেখতে দেখতে একেবারে অন্তিম লগ্নে এসে পৌঁছেছে চব্বিশের লোকসভা নির্বাচন। শনিবার সম্পন্ন হয়েছে ষষ্ট দফার ভোট। আর বাকি মাত্র একটি দফা। সেদিন কলকাতা উত্তর, কলকাতা দক্ষিণ, ডায়মন্ড হারবার, বসিরহাট সহ রাজ্যের বেশ কয়েকটি হাইভোল্টেজ আসনে নির্বাচন রয়েছে। এসবের মাঝেই আজ রেগে আগুন হয়ে গেলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। প্রচার সভা থেকে দলের এক বিধায়কের সঙ্গে কার্যত সম্পর্ক ছেদ করেন তিনি।

শনিবার ভোটের আবহে বসিরহাটের (Basirhat) হাড়োয়ায় সভা করেন মমতা। সেই সভায় উপস্থিত ছিলেন না মিনাখাঁর তৃণমূল বিধায়ক ঊষারানি মণ্ডল (TMC MLA Usha Rani Mondal)। তিনবারের বিধায়ক হাজির হননি শুনে বেজায় চটে যান দলনেত্রী। মঞ্চে দাঁড়িয়েই তিনি বলেন, ঊষারানি যদি ক্ষমা না চান তাহলে দলের দরজা তাঁর জন্য বন্ধ হয়ে যাবে।

   

মমতা এদিন বলেন, প্রত্যেকদিন লাখ লাখ টাকা ধরা পড়ছে। প্যাকেটে করে সেসব নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। টাকা দিয়ে ভোট কেনা হচ্ছে। তৃণমূল নেত্রীর অভিযোগ, ‘এরা মনে করছে টাকা দিয়ে অনেককেই কিনে নেবে’।

আরও পড়ুনঃ ‘ল্যান্ডফলে’র আগেই খেল দেখাতে শুরু করল রেমাল! কলকাতায় শুরু ঝেঁপে বৃষ্টিঃ আবহাওয়ার খবর

এরপরেই ঊষারানিকে নিয়ে মুখ খোলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। মমতা বলেন, ‘আজ মিটিংয়ে না এসে যারা ভাবছেন তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক থাকবেন, তাঁরা আর মিটিংয়ে আসবেন না। তাঁর সঙ্গে দলের কোনও সম্পর্ক থাকবে না। আজই আমি বলে যাচ্ছি, দল আপনাকে নিয়ে চলবে না। যারা ব্লকের রয়েছেন, সংগঠনের রয়েছেন, তাঁরা দেখে নেবেন। যতক্ষণ না তিনি ক্ষমা চাইছেন, পায়ে না ধরছেন ততক্ষণ অবধি ঊষারানি মণ্ডলকে আমরা মানি, আমরা মানি না, আমরা মানি না’।

Mamata Banerjee

আগামী ১ জুন রাজ্যে সপ্তম দফার ভোট। সেদিনই নির্বাচন রয়েছে বসিরহাটে। এই লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত সন্দেশখালি। গত কয়েকমাসে সন্দেশখালি ইস্যু নিয়ে রাজ্য রাজনীতিতে প্রবল চর্চা হয়েছে। সন্দেশখালি আন্দোলনের মুখ রেখা পাত্রকে টিকিট দিয়ে ‘মাস্টারস্ট্রোক’ খেলেছে বিজেপি। অন্যদিকে তৃণমূলের তুরুপের তাস হাড়োয়ার বিধায়ক তথা বসিরহাটের ‘ঘরের ছেলে’ হাজি নুরুল ইসলাম। আজ তাঁর সমর্থনেই সভা করেন তৃণমূল নেত্রী।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর