টাইমলাইনভারত

একেই বলে সততা! মায়ের চিকিৎসার জন্য ২০১ টাকা সাহায্য পেয়েছিলেন এক ব্যক্তি, দেড় বছর পর ফিরিয়ে দিলেন তাকে

বাংলাহান্ট ডেস্ক: বর্তমান যুগে চারপাশে অসৎ লোকের অভাব নেই। যে যেভাবে পারছে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করার কথা ভাবছে অথবা অসৎ উপায়ে কাজ করার কথা ভাবার মানুষের সংখ্যা বেড়ে গিয়েছে অনেকটাই। যেমন ধরুন নিজের বা কোনও নিকটাত্মীয়ের অসুস্থতার কথা বলে মানুষের থেকে টাকা তুলে তারপর বেপাত্তা হয়ে যাওয়া। তবুও মাঝে মধ্যে এমন কিছু ঘটনা সামনে আসে যা দেখে মনে হয় যে এখনও সৎ মানুষ রয়েছেন। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এমনই একটি পোস্ট যা দেখে নেটিজেনদের মত, এখনও মানবিকতা রয়েছে সমাজে।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম লিঙ্কড ইন-এ একটি পোস্ট ভাইরাল হয়েছে। পোস্টটি করেছেন কমল নামের এক ব্যক্তি। তিনি লিখেছেন, দেড় বছর আগে একজন আগন্তুককে ২০১ টাকা দিয়ে সাহায্য করেছিলেন। খানিকটা নিঃস্বার্থ ভাবেই। কারণ তিনি ভেবেছিলেন দেড় বছর পরে সেই আগন্তুকের আর ওই টাকার কথা মনে থাকবে না। 

কিন্তু দেড় বছর পর তিনি দেখেন, সেই আগন্তুক তাঁকে সেই ২০১ টাকা ফেরত পাঠিয়েছেন। কমল প্রথমে বুঝতে পারেননি কে হঠাৎ কেন তাঁকে টাকা পাঠাতে গেল। তিনি ২০১ টাকা ইউপিআই-এর সাহায্যে পাঠিয়েছিলেন। তাই সেই অ্যাপ খুলে দেখতে পান দেড় বছর আগের পাঠানো ২০১ টাকাই তিনি ফেরত পেয়েছেন ওই আগন্তুকের থেকে। আর দেরি না করে সকলের সঙ্গে এই ঘটনা ভাগ করে নিয়েছেন কমল।

No alternative text description for this image

দেড় বছর আগে কমল সিংহ এক আগন্তুককে তাঁর মায়ের চিকিৎসার জন্য ২০১ টাকা ইউপিআই-এর মাধ্যমে পাঠিয়েছিলেন। দেড় বছর পর ওই টাকাই ফেরত পেয়েছেন তিনি। হঠাৎ তাঁর কাছে ২০১ টাকা কোথা থেকে এল তা বুঝতে না পারলেও তিনি ইউপিআই অ্যাপ খুলে ব্যাপারটা বুঝতে পারেন। ওই আগন্তুকের সঙ্গে বার্তালাপও হয় তাঁর। কমল তাঁকে জিজ্ঞেস করেন, “আপনার মা এখন কেমন আছেন?” এতে আগন্তুক জবাব দেন, “মা ভালো আছেন। আমার ব্যবসাও ভালো চলছে।” 

এরপর তিনি জানান যে দেড় বছর আগে যাঁদের থেকে আর্থিক সাহায্য নিয়েছিলেন, এখন তাঁদের সবাইকে টাকা ফেরত দিচ্ছেন তিনি। কমল সকলের সঙ্গে এই অভিজ্ঞতা ভাগ করে নেওয়ার পর রীতিমতো ভাইরাল হয়ে গিয়েছে এই পোস্ট। এমন সততার ঘটনা নজর কেড়েছে নেটিজেনদের। ওই আগন্তুকের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন নেটিজেনরা।

একজন নেটিজেন কমলের পোস্টে কমেন্ট করেছেন, “এটি খুবই প্রেরণামূলক কাহিনী।” অন্য আর একজন লেখেন, “২০২০ সালে আমিও একজনকে ৯ হাজার টাকা দিয়ে সাহায্য করেছিলাম। সে আমার বন্ধু এবং সেই সময় তাঁর চিকিৎসার জন্য ওই টাকার প্রয়োজন ছিল। আমি আজও সেই টাকার একটুও ফেরত পাইনি। সততা সব সময় কাজ করেনা।” 

Related Articles