টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

“মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সবচেয়ে বেশি কাটমানির অভিযোগ রয়েছে” : মুকুল রায়

 

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বেলুড় মঠে সৌজন্য সাক্ষাতে এসে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তীব্র আক্রমণ করলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়৷ কাটমানি নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সবচেয়ে বেশি কাটমানির অভিযোগ রয়েছে। ২৫ শতাংশ টাকা কর্মীদের কাছে আছে আর ৭৫ ভাগ কাটমানির টাকা মমতার কাছে আছে। এই ৭৫ শতাংশ কাটমানির টাকা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে নিয়েছেন। উনি আগে বলুন কিভাবে সেই টাকা ফেরত দেবেন। তাকেই জবাব দিতে হবে।”

 

সারদা, নারদা সহ একাধিক ইস্যুতেও এদিন মুখ খোলেন মুকুল। বেলুড় মঠে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন “সারদা নারদা তদন্তে সবচেয়ে বেশি বেনিফিশিয়ারি যদি কেউ থাকে তার নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যে কোনও তদন্তের মুখোমুখি হতে আমি রাজি। মমতা রাজি আছেন কি?” সরাসরি মুকুল এই প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন তৃণমূল নেত্রীর দিকে।
তিনি আরো বলেন গতকাল ইস্কনের রথের রশি টেনে যাত্রার সূচনা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর সঙ্গে ছিলেন বসিরহাটের সাংসদ নুসরত। রথযাত্রায় নুসরতের উপস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুললেন মুকুল রায়। তাঁর বিশ্বাস, হিন্দুদের ভাবাবেগে আঘাত করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।


এদিন বেলুড় মঠে এসে তিনি বলেন,’নুসরতকে নিয়ে গিয়ে রথের দড়ি টানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কারও ধর্মকে নিয়ে বলতে চাই না। কিন্তু হিন্দু সম্প্রদায়ের একজন বিদগ্ধ ব্যক্তি আমায় এনিয়ে প্রশ্ন করেছেন যে আমি আমার ধর্মীয় অবস্থানকে না পাল্টে হজে যেতে চাই। মুখ্যমন্ত্রী ব্যবস্থা করুন’।
প্রসঙ্গত বৃহস্পতিবার ইস্কনের রথে আমন্ত্রিত ছিলেন নুসরত। মঙ্গলসূত্র, সিঁদুর ও চূড়া পরে একেবারে নববধূর সাজে এসেছিলেন বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ। রথযাত্রার আগে নারকেল ফাটানো থেকে আম্রপল্লব দিয়ে চন্দনের জল ছেঁটানোর আচারও পালন করেন নুসরত। আর তাঁর ধর্মীয় অবস্থান সম্পর্কে নুসরত স্পষ্ট বলেন, ফতোয়া প্রসঙ্গে এদিন নুসরত বলেন,’এই ধরনের ভিত্তিহীন বিষয়ে মাথা ঘামাতে চাই না। আমার ধর্ম জানি। জন্ম থেকে আমি মুসলিম। এখনও তাই। এটা বিশ্বাসের ব্যাপার। হৃদয় দিয়ে অনুভব করতে হবে। মাথা খাটালে চলবে না’।

Related Articles

Back to top button