‘মণিপুর নিয়ে আলোচনা করতে বিরোধীরা ভয় পাচ্ছে!’, কংগ্রেস ও তৃণমূলকে এক আসনে বসিয়ে তুলোধোনা মোদির

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক : রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের (West Bengal) শাসকদল তৃণমূলকে (Trinamool Congress) তুমুল নিশানা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। শনিবার বিজেপির (Bharatiya Janata Party) পঞ্চায়েতি রাজ সম্মেলনে ভার্চুয়ালি উপস্থিত হয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের নিন্দায় সুর চড়ান মোদি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তৃণমূল পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় রক্ত নিয়ে খেলেছে।’ এরই সঙ্গে মণিপুর নিয়েও বিরোধীদের চরম আঘাত হানেন নমো।

মোদি তাঁর ভাষণে আরও বলেন, ‘কোনও বিজেপি প্রার্থী যাতে মনোনয়ন দাখিল করতে না পারেন তা নিশ্চিত করার জন্য শাসকদল তৃণমূল পঞ্চায়েত ভোটে কোনও কসুর ছাড়েনি। তাঁরা কেবল বিজেপি কর্মীদেরই নয়, ভোটারদেরও হুমকি দিয়েছে। বুথ দখলের জন্য চুক্তি দেওয়া হয়। এই রাজ্যে রাজনীতি করার এটাই যেন পথ।’

এরই সঙ্গে মোদির দাবি উত্তর-পূর্ব ভারতের সমস্যার জন্য একমাত্র দায়ী কংগ্রেস। মণিপুর নিয়ে যত কম রাজনীতি করবে, তত তাড়াতাড়ি শান্তি ফিরবে। তিনি বলেন, ‘ভোটের জন্য নয়, উন্নয়নের জন্যই উত্তর-পূর্ব ভারতকে প্রাধান্য দিচ্ছি আমরা’। ‘২০২৮-এ আবার অনাস্থা আনবেন বিরোধীরা, একটু হোমওয়ার্ক করে আসবেন’, তীব্র কটাক্ষ মোদির ।

modi 2

এদিন প্রধানমন্ত্রী বলেন, মণিপুর আবার উন্নয়নের রাস্তায় ফিরবে। ভারতকে টুকরো টুকরো করাই কংগ্রেসের ইতিহাস। সস্তার রাজনীতি করছে বিরোধীরা। বিরোধী শূন্য লোকসভায় মণিপুর নিয়ে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মণিপুর-হিংসা নিয়ে বিস্তারিত তথ্য দিয়েছেন। মণিপুরে শান্তির সূর্যোদয় হবেই। দেশ মণিপুরের পাশে আছে, দোষীরা শাস্তি পাবেই।’

সরাসরি কংগ্রেসেকে আক্রমণ করে মোদি বলেন, ‘কংগ্রেসের এত অহঙ্কার যে, মাটিতে পা থাকে না। ১৯৬২ সালের পর ৬১ বছর পার, কংগ্রেসে অনাস্থা তামিলনাড়ুর মানুষের। পশ্চিমবঙ্গ-বিহার-উত্তরপ্রদেশের মানুষেরও কোনও আস্থা নেই কংগ্রেসের ওপর। অহংকারের জন্যই আজ কংগ্রেস ৪০০ থেকে ৪০ হয়েছে।’

Avatar
Sudipto

সম্পর্কিত খবর