টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

ফের বোমা ফাটালেন রাজীব, শুভেন্দুকে কটাক্ষ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিস্ফোরক পোস্ট প্রাক্তন মন্ত্রীর

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রাজীব কাঁটা যেন কাটিয়ে উঠতেই পারছে না বিজেপি। নির্বাচনে হারের পর থেকে বিজেপির সঙ্গে দূরত্ব বাড়িয়ে চলা রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে বারবার বেসুরো হতে দেখা দিয়েছে। সর্বপ্রথম শুরু হয়েছিল একটি টুইট দিয়ে, যেখানে রাজীববাবুকে বলতে শোনা গিয়েছিল যে, ‘নির্বাচিত সরকারকে বারবার দিল্লী আর ৩৫৬ ধারার ভয় না দেখাতে।” এর কিছুদিন পর রাজীববাবুকে তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষের বাড়িতে দেখা গিয়েছিল।

যদিও, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় আর কুণাল ঘোষ সেই সময় দাবি করেছিলেন যে, সেটা সৌজন্য সাক্ষাৎ ছিল মাত্র। এরপর রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূলে ফিরে যাওয়ার জল্পনা আরও বেড়ে যায়। কিন্তু রাজীববাবু বেসুরো হওয়ার পর ক্ষেপে যায় তৃণমূলের কর্মীরা। ডোমজুড়ে রাজীববাবুর এলাকায় ওনাকে মীরজাফর বানিয়ে একের পর এক প্ল্যাকার্ড টাঙানো হয়। সেই প্ল্যাকার্ড কান্ডের পর রাজীববাবু বেশ কয়েকদিন চুপ ছিলেন।

এরপর একদিন হঠাৎ বিজেপির ঘরছাড়া কর্মীদের তালিকা পাঠিয়ে তিনি বোঝাতে চেয়েছিলেন যে, তিনি আপাতত বিজেপিতে আছেন। কিন্তু ঠিক তাঁর পরের দিন বিজেপির কার্যকারিণী বৈঠকে ওনার অনুপস্থিতি আবারও তৃণমূল যোগের জল্পনা উস্কে দেয়। আর এরই মধ্যে রাজীববাবু আরও একটি বিস্ফোরক পোস্ট করে ফের জল্পনা উস্কে দিলেন।

রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় প্রায় ঘণ্টাখানেক আগে একটি ছবি টুইট করে লেখেন, ‘ বিরোধী নেতাকে বলব … যার নেতৃত্বে ও যাকে মুখ্যমন্ত্রী দেখতে চেয়ে বাংলার মানুষ ২১৩টি আসনে তাঁর প্রার্থীদের ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন, সেই মুখ্যমন্ত্রীকে অযথা আক্রমণ না করে, সাধারণ মানুষের দুর্দশা মুক্তির জন্য পেট্রোল, ডিজেল ও রান্নার গ্যাসের মূল্যহ্রাস করাই একমাত্র লক্ষ্য হওয়া উচিৎ।”

রাজীব ব্যানার্জীর এই পোস্ট যে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়েই ছিল, সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। বিধানসভায় শুভেন্দুবাবুর নেতৃত্ব বিজেপির বিধায়করা যেমন ভাবে তৃণমূলের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানাচ্ছে, হয়ত সেটা দেখেই ব্যথিত হয়েছেন রাজীববাবু। আর সেই কারণেই এই পোস্ট।

Related Articles