টাইমলাইনভারত

বিজেপির সাংসদ বললেন, আজ গান্ধীজি বেঁচে থাকলে, সঙ্ঘের স্বয়ং সেবক হতেন!

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ভারতীয় জনতা পার্টির রাজ্যসভা সাংসদ রাকেশ সিনহা (Rakesh Sinha) মহত্মা গান্ধীকে নিয়ে বড় বয়ান দেন। উনি বলেন, আজ মহত্মা গান্ধী বেঁচে থাকলে রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সঙ্ঘের (RSS) সদস্য হতেন। মহত্মা গান্ধীর ১৫০ তম জয়ন্তীতে উনি বলেন, গান্ধীর নাম আর ওনার আদর্শের যারা বুলি আওড়ায় তাঁরাই গান্ধীর বিচারধারার বিরুদ্ধে কাজ করে। RSS গান্ধীর বিচারধার অনুসরণ করে।

বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ তথা দিল্লী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রাকেশ সিনহাকে সঙ্ঘের পথ প্রদর্শক হিসেবেই জানা যায়। তিনি রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সঙ্ঘের সংস্থাপক কেশব বলিরাম হেডগেওয়ারকে নিয়ে অনেক বই লিখেছেন। আরেকদিকে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গান্ধী জয়ন্তীতে বুধবার সকালে রাজঘাটে গিয়ে রাষ্ট্রপিতা মহত্মা গান্ধীকে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান। প্রধানমন্ত্রী সকালে রাজঘাটে পৌঁছে মহত্মা গান্ধীকে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানান। ওনার সাথে লোকসভার স্পীকার ওম বিড়লাও উপস্থিত ছিলেন।

সঙ্ঘ প্রধান মোহন ভাগবত নিজের এক লেখনীতে বলেছেন, সঙ্ঘের শাখা গুলোতে প্রতিদিন সকাল মহাপুরুষদের স্মরণ করা প্রথা আছে। ১৯৬৩ সালে গান্ধীজীর নাম সঙ্ঘের স্মরণ সভায় যোগ করা হয়। বর্তমানে সেটিকে ‘একাত্মতা স্ত্রোত” বলে জানা যায়। সঙ্ঘের স্বয়ংসেবকেরা প্রতিদিন সকালে একাত্মতা স্ত্রোতে গান্ধীজীর নাম উচ্চারণ করে।

আরেকদিকে, জাতির জনক মহত্মা গান্ধীর ১৫০ তম জন্ম শত বার্ষিকীতে কংগ্রেস সভাপতি সনিয়া গান্ধীর RSS এর উপর আক্রমণ করেন। কংগ্রেসের পদযাত্রা অনুষ্ঠানে সনিয়া গান্ধী বলেন, কিছু মানুষ আজ RSSকে দেশের প্রতীক বানাতে চাইছে। কিন্তু এটা সম্ভব না। আমদের দেশের ভীত গান্ধীজীর বিচারধারা দিয়ে মজবুত হয়েছে।

Related Articles