টাইমলাইনভারত

ভারতীয় জওয়ানদের জন্য সোলার টেন্ট বানালেন বাস্তবের ‘র‍্যাঞ্চো”, প্রযুক্তি দেখে অবাক সবাই

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ লাদাখের ইঞ্জিনিয়ার, শিক্ষাবিদ তথা ইনোভেটর সোনম ওয়াংচুক ট্যুইটারে জানিয়েছেন যে, তাঁর টিম এমন এক সোলার হিট টেন্ট বানিয়েছে, যা লাদাখের হাড় কাঁপানো ঠাণ্ডা আর উচ্চতায় মোতায়েন ভারতীয় জওয়ানদের জন্য উপকারী প্রমাণিত হবে। সোনম ট্যুইটে বলেন, যখন বাইরের তাপমাত্র মাইনাস ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়ায় থাকবে, তখন এই টেন্টের ভিতরের তাপমাত্রা ১৫ ডিগ্রি অথবা তাঁর আশেপাশে থাকবে। শুধু তাই নয়, সোনমের মতে এই টেন্টের জন্য কোনও জ্বালানীর দরকার নেই, এই টেন্ট পরিবেশ বান্ধব।

https://twitter.com/Wangchuk66/status/1362811687028416513

সোনমের টিম দ্বারা বানানো এই টেন্ট পূর্ববর্তী টেন্টের দ্বিতীয় ভার্সন। সোনম ১০ বছর আগে এরকমই একটি টেন্ট বানিয়েছিলেন। শীতের মরশুমে লাদাখবাসীকে স্বস্তি দেওয়া জন্য সোনম এক দশক আগে একটি প্রোটোটাইপ তৈরি করেছিলেন। সোনম বলেন, সরকার আমার ওই টেন্টের বদলে কাপড়ের টেন্টই বণ্টন করেছিল, আর সরকারের সেই সিদ্ধান্ত ভুল ছিল। এবার সোনম আর তাঁর টিম ভারতীয় জওয়ানদের জন্য এই নতুন টেন্ট বানিয়েছে।

চীনের সঙ্গে সীমান্ত নিয়ে চলা বিবাদের কারণে লাদাখে বিশাল সংখ্যক ভারতীয় জওয়ানদের মোতায়েন করা হয়েছে। আর সেই জওয়ানরা হাড় কাঁপানো শীতে নিজেদের গরম রাখার জন্য কেরোসিন তেল জ্বালানী হিসেবে ব্যবহার করেন। এত পরিমাণে কেরোসিন তেল ব্যবহার করার কারণে সরকারের যেমন খরচ বাড়ে, তেমনই পরিবেশও দূষণ হয়। এছাড়াও জওয়ানদের শারীরিক দিক থেকেও কমজোর হয়ে পড়েন এবং আগুন লাগার আশঙ্কা থাকে। আর সেই কারণে সোনম ওয়াংচুক এই নতুন টেন্ট বানিয়েছেন।

এই সোলার হিটেড টেন্টের সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল এটি পোর্টেবল আর আপনি এটিকে যেখানে খুশি নিয়েও যেতে পারবেন। যদিও এই টেন্ট বানাতে সোনম ওয়াংচুক কোন উপকরণ ব্যবহার করেছেন, সেটি জানাতে চাননি। কিন্তু তিনি বলেছেন, সৌর বাড়িগুলি যেভাবে নির্মিত হয়, এই তাঁবুটি একই বৈজ্ঞানিক নীতির উপর ভিত্তি করে বানানো হয়েছে।

Back to top button