টাইমলাইন

বছরের শুরুতেই ভারত পেল সাফল্য! ইসরোর স্যাটেলাইট GSAT-30 পৌঁছে গেল কক্ষপথে

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ নির্ধারিত দিনেই সফল ভাবে নয়া স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করল ইন্ডিয়ান স্পেস রিসার্চ অর্গানাইজেশন (ইসরো)। শুক্রবার ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সি ‘আরিয়ানস্পেস’-এর আরিয়ানা-৫ লঞ্চ ভেহিকেলে (ভিএ-২৫১) চেপে পাড়ি দেয় GSAT-30 উপগ্রহ। এই কৃত্রিম উপগ্রহটি ইসরোর কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট দের মধ্যে সবচেয়ে বেশী উন্নত।

ভারতীয় সময় মতে সকাল ২.৩৫ মিনিটে দক্ষিণ আমেরিকার উত্তর-পূর্ব উপকূলবর্তী উৎক্ষেপণ কেন্দ্র ফ্রেঞ্চ গিয়ানা থেকে GSAT-30 স্যাটেলাইটটির উৎক্ষেপণ করা হয়। কাজ করবে কমপক্ষে ১৫ বছর।  ১৯৮১ সাল থেকে ফ্রেঞ্চ গিয়ানা থেকে মোট ২১টি উপগ্রহ মহকাশে পাঠিয়েছে ইসরো।

‘আরিয়ানস্পেস’-এর স্টিফানে ইজরায়েল টুইট করে জানান, Flight marked another success for @ISRO, with a total of 24 spacecraft orbited for ’s space agency. Thanks for your continued confidence on today’s .( # আইএআরএর জন্য বিমান # ভিএ 251 আরও একটি # আরিয়েনস্পেস সাফল্য চিহ্নিত করেছে, # ভারতের মহাকাশ সংস্থার জন্য মোট 24 স্পেসক্র্যাফ্ট প্রদক্ষিণ করেছে। ”

জিস্যাট-৩০ উপগ্রহটির ওজন ৩৩৫৭ কে জি। ইসরোর মতে, যোগাযোগ ব্যবস্থায় বিরাট পরিবর্তন আনার লক্ষেই এই উপগ্রহ। আগামি দিনে দেশে মোবাইল ও ইন্টারনেট যোগাযোগ পরিষেবার পাশাপাশি, টেলিভিশন প্রযুক্তিতে বিশেষ সুফল পাওয়া যাবে। একই সাথে প্রত্যন্ত গ্রামে ডিটিএইচ পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হবে। কেনাকাটা থেকে চাকরি খোঁজা, গেমস খেলা থেকে ট্যাক্সি ডাকা, ব্যাংকিং থেকে রেলের বা প্লেনের টিকিট কাটা – ভারতীয়রা এখন ইন্টারনেটে অনেকটাই এগিয়ে গেছে। এই উপগ্রহের ফলে আরো ভাল ইন্টারনেটের সুবিধা যে ভারতকে আরো উন্নত করবে তা বলাই যায়।

 

Back to top button