সুবীরেশ অতীত! নিয়োগ দুর্নীতিতে CBI-র নজরে উত্তরবঙ্গের আরও এক বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ গতবছর থেকে বঙ্গে নিয়োগ দুর্নীতির (Recruitment Scam) রমরমা! শিক্ষক কেলেঙ্কারি কাণ্ডে একে একে নাম জড়িয়েছে রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী থেকে শুরু করে এসএসসির প্রাক্তন চেয়ারম্যান, প্রাক্তন পর্ষদ সভাপতি থেকে শুরু করে বহুজনার। নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগেই বহুমাস জেলবন্দি উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন উপাচার্য তথা এসএসসির প্রাক্তন সচিব সুবীরেশ ভট্টাচার্য। এরই মধ্যে এবার ফের দুর্নীতি মামলায় উত্তরবঙ্গের আরও একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক উপচার্য (Ex Vice Chancellor) যোগ।

নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় এবার সিবিআই (CBI) এর আতস কাঁচের নীচে উত্তরবঙ্গের আরেক উপচার্য। সূত্রের খবর, সম্প্রতি ওই উপাচার্যকে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব থেকে অপসারণ করা হয়েছে। অভিযোগ, আর্থিক লেনদেনের দুর্নীতিতে যোগ রয়েছে তার। ওই উপাচার্যর বিরুদ্ধে উত্তরবঙ্গের একাধিক স্কুলে শিক্ষক-অশিক্ষক পদে প্রায় ১৫০ জনকে টাকার বিনিময়ে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

   

শুধু তাই নয়, সিবিআই সূত্রে দাবি, এই উপাচার্যর সঙ্গে যোগ ছিল সুবীরেশের। প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে চাকরির বিনিময়ে ওই প্রার্থীদের কাছ থেকে মোটা টাকা নিয়ে তাদের নামের তালিকা সুবীরেশের কাছে ইমেল করতেন ওই উপাচার্য। তারপর সেই সুপারিশের তালিকা অনুযায়ী প্রার্থীদের নিয়োগের বিষয়টা দেখতেন সুবীরেশ।

তদন্তকারী সূত্রে আরও খবর, সুবীরেশ ছাড়াও রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়, মধ্যশিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে ওই উপচার্যের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। উপচার্য মারফত বেআইনি নিয়োগের এই গোটা প্রক্রিয়ায় সঙ্গে পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও মধ্যশিক্ষা পর্ষদের প্রাক্তন সভাপতিও জড়িত ছিলেন বলে বিস্ফোরক দাবি সিবিআই এর।

cbi scam

CBI সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রাথমিক তদন্তের পর সুবীরেশকে পাঠানো চাকরিপ্রার্থীদের নামের তালিকা সহ একটি ইমেইল তাদের হাতে এসেছে। সেই সূত্র ধরে খুব শীঘ্রই ওই উপাচার্যকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করতে চলেছে গোয়েন্দারা।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর