টাইমলাইনবিশেষভারত

‘আমার জন্য মেয়ে খুঁজে দিন” ইউপি পুলিশের কাছে সাহায্যের আর্তি নিয়ে গেল তিন ফুটের পাত্র

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ আজিম মনসুরি নামের এক ব্যক্তি বিয়ে করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছেন। বিয়ে করার আর্তি নিয়ে আজিম উত্তর প্রদেশের শামলি জেলার কৈরান কোতওয়ালি পৌঁছে যান। তিন ফুট দুই ইঞ্চির আজিম মনসুরির (২৬) আর্তি শুনে পুলিশকর্মীরা অবাক হয়ে যান। প্রসঙ্গত, আজিম মনসুরি কৈরান থানায় নিজের বিয়ে আর মেয়ে খোঁজার জন্য আবেদন জানান। আজিমের সমস্যা দেখে পুলিশ তাঁকে বিয়ে করিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেয়।

থানায় পৌঁছে আজিম শিক্ষিত মেয়ে খুঁজে তাঁর বিয়ে করিয়ে দেওয়ার আবেদন করেন পুলিশের কাছে। আজিম এর আগে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ আর সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো অখিলেশ যাদবকে চিঠি লিখে সাহায্যের আবেদন করেছিলেন। বলে দিই, ২৬ বছর বয়সী মহম্মদ আজিম মনসুরি কৈরানা কোতওয়ালির অন্তর্গত জোড়া কুয়ো এলাকার বাসিন্দা। আজিম তাঁর মা-বাবার ছয় সন্তানের মধ্যে তৃতীয় সন্তান।

আজিম নিজের হাইট নিয়ে নানান সমস্যার সন্মুখিন হয়েছে। আজিম বলে, অনেকবার ওনার জন্য পাত্রীর খোঁজ এসেছিল, কিন্তু হাইট কম হওয়ার কারণে সম্পর্ক গড়ার আগেই ভেঙে যায়। আজিম জানান, আমি খুব গরিব ঘরের সন্তান কিন্তু পরিবারের সদস্যদের পেট চালানোর জন্য সক্ষম। আজিম জানান, মেয়ে যেমনই হোক না কেন, পড়াশোনা জানা হতে হবে।

আজিম পুলিশের কাছে আবেদন করে বলেন যে, রমজান মাসের আগে যেন তাঁর একটা হিল্লে হয়ে যায়। আজিম বলেন, আমি বিয়ের পর বৌকে নিয়ে গোয়া, শিমলা আর মানালি হানিমুনে যাব। আজিম বলেন, আমি পুলিশের কাছে আবেদন করে এসেছি ওনার বলেছেন আমরা বিষয়টা দেখছি। যদি মেয়ে পেয়ে যায় ওঁরা তাহলে আমার বিয়ে করিয়ে দেবে। শামলি পুলিশ আজিমের কথা মন দিয়ে শোনে আর তাঁর জন্য মেয়ে খুঁজে দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দেয়।

পুলিশ জানায়, বিয়ে করিয়ে দেওয়ার আবেদন নিয়ে এই প্রথম কেউ থানায় আসলো। আমরা যথাসম্ভব ওঁর জন্য পাত্রী খোঁজার চেষ্টা করব। মহিলা থানা ইনচার্জ নীরজ চৌধুরী বলেন, আজিম গত বছরও আমাদের থানায় এসেছিল। তখন সে তাঁর মা-বাবার বিরুদ্ধে বিয়ে না করানোর অভিযোগ করেছিল।

Back to top button