‘একদিন তো মরেই যাব,তবু..’অংক খাতায় পরীক্ষার্থীর ‘মনের কথা’ পড়ে চক্ষু চড়কগাছ পরীক্ষকদের

বাংলাহান্ট ডেস্ক : আমাদের প্রত্যেকের জীবনে স্কুল জীবন ছিল সোনালী মুহূর্তের সাক্ষী। আমাদের ছোট থেকে বড় হয়ে ওঠা স্কুল সাক্ষী রয়েছে কত কত ইতিহাসের। পড়াশোনা না পারলে শিক্ষকের হাতে মার খাওয়া থেকে শুরু করে বন্ধুদের টিফিন ভাগ করে খাওয়া, কবীর সুমনের ভাষায় জীবনের ‘প্রথম সবকিছু’র শুরু এই স্কুল থেকেই।

এক পরীক্ষার্থীর অঙ্ক খাতার ভাইরাল ভিডিও (Viral Video)

তবে মাঝেমধ্যেই ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে আতঙ্কের কারণ হয়ে দাঁড়াত পরীক্ষা। পড়াশোনায় যারা ভালো ছিলেন তাদের কাছে পরীক্ষা মোটেও আতঙ্কের কিছু ছিল না। তবে যারা ফাঁকি মারতেন তাদের কাছে পরীক্ষা অনেকটা ‘পূর্ণিমার চাঁদ ঝলসানো রুটি’র মতো। স্কুল জীবনে অধিকাংশ ছাত্র-ছাত্রীর ভয় থাকে অংক বিষয়টিকে নিয়ে। অংক পরীক্ষার নাম শুনলেই আমাদের গায়ে জ্বর চলে আসত।

আরোও পড়ুন : রথযাত্রার দিন কখন জগন্নাথ দেবের পুজো করলে পূর্ণ হবে মনষ্কামনা?কোন ভুল করলে ছারখার হবে জীবন?

তবে কখনো এমন শুনেছেন যে অংক পরীক্ষার উত্তরপত্রে কবিতা লিখে দিয়ে এসেছে কোনও ছাত্র? উত্তরপত্র দেখার সময় এমনই এক তাজ্জব ঘটনার সাক্ষী থাকলেন এক শিক্ষক। সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media) ওই শিক্ষকই শেয়ার করেছেন পরীক্ষার্থীর এমন অদ্ভুত উত্তরপত্রটি। ইন্সটাগ্রামে রাকেশ শর্মা নামে এক ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করা হয়েছে একটি ভিডিও (Viral Video)।

আরোও পড়ুন : কারণ ছাড়াই শুক্রবার ‘স্পেশাল’ টিফিন ব্রেক! রামপুরহাটের স্কুলের বিজ্ঞপ্তি সামনে আসতেই শোরগোল

সেই ভাইরাল ভিডিওতে (Viral Video) দেখা যাচ্ছে, এক শিক্ষকের সামনে প্রচুর পরীক্ষার উত্তরপত্র রয়েছে। সেই সময় তিনি একটি অংকের উত্তরপত্র চেক করছিলেন। এরপর ক্যামেরার সামনে একটি উত্তরপত্র নিয়ে এসে দেখান তিনি। তারপর তিনি ক্যামেরার সামনে বলেন, এই ছাত্র ১৮ নম্বর পেয়েছে এমসিকিউতে। ওই ছাত্র কোন অংকে কত নম্বর পেয়েছে তা দেখাতে শুরু করেন ওই শিক্ষক। এরপর পাতা ওল্টাতে ওল্টাতে তিনি চলে যান শেষ পাতায়।

দেখা যায়, ওই ছাত্র প্রত্যেকটি অংকের শেষে পরীক্ষকের উদ্দেশ্যে লিখে গিয়েছে নোট। ছাত্রটি লিখেছ, “পড়াশোনা করে আর কী হবে? একদিন তো মরেই যাব। তবুও পাশ করার ইচ্ছে রয়েছে।” যদিও ওই শিক্ষক জানিয়েছেন যে ছাত্রটি অংকে উত্তীর্ণ হওয়ার মতো নম্বর পেয়েছে। তবে এই ছাত্রের এমন কাণ্ড দেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকেই অবাক হয়ে গেছেন। বলাই বাহুল্য এমন কাণ্ড দেখে আনন্দ পেয়েছেন বহু মানুষ।

এই ভিডিওটি মে মাসে ভাইরাল হয়। তারপর এখনো পর্যন্ত কোটির কাছাকাছি মানুষ দেখে ফেলেছেন এই ভিডিওটি (Viral Video)। মজার মজার মন্তব্য করেছেন অনেকেই। একজন ব্যবহারকারী যেমন লিখেছেন, “কেবলমাত্র একটা কাগজের টুকরো আমার ভবিষ্যৎ ঠিক করে দিতে পারে না।” মজা করে অন্য এক ব্যবহারকারীর মন্তব্য,  “দেখে মনে হচ্ছে এটা আমার অঙ্কের খাতা।”

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর