টাইমলাইনভারত

কাজ করেন দিনমজুরের, আয়কর বিভাগের অভিযানেই বেরিয়ে এল ১০০ কোটি টাকা

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ দরিদ্র দিনমজুর, এক রাতেই কিনা হয়ে গেলেন ১০০ কোটি টাকার মালিক। নিজের কানকেও বিশ্বাস করতে পারছেন না রাজস্থানের সিকার জেলার একটি ছোট্ট গ্রামের বাসিন্দা সঞ্জু দেবী। দিন মজুরি করে কোনক্রমে যার দিন চলত, সে কিনা এখন ১০০ কোটি টাকার মালিক!

এক দুর্ঘটনায় ১২ বছর আগে সঞ্জু দেবীর স্বামী মারা যান। তারও আগে ২০০৬ সালে সঞ্জু দেবীর স্বামী তাঁকে আমেরে নিয়ে গিয়ে সমাজের বেশ কয়েকজন গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সামনে বেশকিছু নথি কাগজে স্বাক্ষর করার কথা বলেন। কোন কিছু না জিজ্ঞেস করেই, স্বামীর কথাতেই সেই কাগজে টিপ ছাপ দিয়ে দেয় সঞ্জু দেবীও।

সঞ্জু দেবী জানিয়েছেন, তিনি দিন মজুরি করে খুব কষ্ঠে সংসার চালান। তাঁর পরিবারে দুজন বাচ্চাও পড়শুনা করে। এমনকি তাঁর শ্বশুর এবং স্বামী দুজনেই ছোটখাটো কাজ করতেন। কিন্তু কি করে তিনি এখন এতোটাকার মালিক হয়ে গেলেন, তা নিজেও বুঝে উঠতে পারছেন না।

সঞ্জু দেবীর স্বামী থাকাকালীন একটা সময়ে তাঁকে বেশকিছু জাগজে টিপ ছাপ দিতে বলেছিলেন। সেখানে কিছু গণ্যমান্য ব্যক্তিও উপস্থিত ছিলেন। এখন এই ১০০ কোটি টাকার বিষয়টা শুনে তিনি ধারণা করছেন, হয়ত তখন এসব করা হতে পারে। কিন্তু কেন করা হয়েছিল, সে সম্পর্কেও কিছু জানেন না তিনি।

জয়পুর-দিল্লি মহাসড়কের উপর অবস্থিত কিছু জমি দখল করতে গিয়ে আয়কর বিভাগের কিছু কর্মকর্তা সেখানে ৬৪ বিঘার কিছু বেশি পরিমাণ জমির সম্পর্কে জানতে পারেন। যে জমিটি সঞ্জু দেবী নামক এক মহিলার নামে ছিল। যে জমির বর্তমান মূল্য প্রায় ১০০ কোটি টাকা।

Back to top button