CPM-র বাইরন! বামেদের টিকিটে জয় পেয়ে গণনা কেন্দ্রই যা ঘটনা ঘটালেন প্রার্থী…,’থ’ সকলে

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ পঞ্চায়েত ভোট (Panchayat Vote) জুড়ে হাজারো কাণ্ড। আজ মঙ্গলবার, সকাল ৮টা থেকে চলছে ভোট গণনা। ঘড়ির কাটায় প্রায় ৬টা। অবাধ হিংসা, অশান্তি, ছাপ্পা, প্রানহানির পর আজ এই পর্যন্ত ভোট গণনা শেষে যেই চিত্র উঠে আসছে তাতে পঞ্চায়েতে ফের জোড়াফুল ফোটাতে চলেছে শাসক শিবির (Trinamool Congress)।

বেশ কিছু জায়গায় ভালো ফল করতে চলেছে বিরোধীরাও। কিছুদিন আগেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee) জোর গলায় এক সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, “বিরোধী প্রার্থীরা ভোটে জিতলেও তারা তৃণমূলে চলে আসবেন৷” মুখ্যমন্ত্রীর এই কথা যেন অক্ষরে অক্ষরে মিলে গেল কালনার (Kalna) ঘটনায়।

   

পূর্ব বর্ধমানের (Purba Bardhaman) কালনা-১ ব্লকের কাঁকুরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের ১৬৯ নম্বর আসন থেকে ভোটে দাঁড়ান সিপিএম প্রার্থী (CPM Candidate) গীতা হাঁসদা৷ ফলাফল আসলে দেখা যায় শাসকদলকে হারিয়ে জয়ী হয়েছেন তিনি। কিন্তু ভোট গণনা কেন্দ্র থেকে বেরিয়ে এসেই ঘটালেন অবাক কাণ্ড। তৃণমূলে যোগ দেওয়ার কথা জানিয়ে দিলেন গীতা।

সূত্রের খবর, কাঁকুরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতে মোট ১৮টি আসনের মধ্যে ১৭টি আসনেই জয় পেয়েছে তৃণমূল৷ একটি মাত্র আসনে জয়ী হয় সিপিএম৷ তবে এরই মধ্যে তিনিও নাম লেখালেন ঘাসফুলে। ফলে ওই গ্রাম পঞ্চায়েতের সবকটা আসনই চলে এখন শাসকদলের ঝুলিতে।

tmc and cpm

এদিন ফলাফল সামনে আসার পর তৃণমূলে যোগদান নিয়ে গীতা হাঁসদা বলেন, ‘আমি তৃণমূলই করতাম৷ একটা কারণে সিপিএমে গিয়েছিলাম৷ তবে সেই কারণটা বলা যাবে না৷ সিপিএম মাত্র একটা আসনে জিতেছে৷ একটা আসন নিয়ে তো পঞ্চায়েতে কিছু করা যাবে না৷ তাই তৃণমূলে ফিরে এলাম৷’

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর