শূন্য থেকে শীর্ষে! শোভাযাত্রা থেকে একগুচ্ছ প্রকল্প, ৪২ তম প্রতিষ্ঠা দিবসে একাধিক কর্মসূচি বিজেপির

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ৬ এপ্রিল ১৯৮০। আজ থেকে ৪২ বছর আগে গঠিত হয় ভারতীয় জনতা পার্টি। তারপর এই ৪২ বছরে কেন্দ্রীয় শাসকদলই শুধু নয়, ভারতের ১৮ টি রাজ্যের শাসনভার দখল করেছে তারা। যার মধ্যে ৮টি রাজ্যে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গড়েছে বিজেপিই। দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে এসে ৪২ তম প্রতিষ্ঠা দিবসটি তাই আরও বিশেষ করে তুলতে একগুচ্ছ পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে দলের তরফে।

   

এদিনের সবচেয়ে বড় কর্মসূচি হতে চলেছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বক্তৃতা। এদিন সকাল ১০ টায় বিজেপি কর্মী এবং সমর্থকদের উদ্দ্যেশ্যে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী। এছাড়া উত্তোলন করা হয় দলীয় পতাকা। দেশের প্রতিটি জেলা, বিভাগ, প্রতিটি এলাকায় উত্তোলিত হবে বিজেপির পতাকা। দলের প্রত্যেক কর্মীকেই এই অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এবারের অন্যতম বড় ব্যাপার হতে চলেছে শোভাযাত্রা, যা নিয়ে বেশ কয়েকদিন আগে থেকেই কোমর বেঁধে প্রস্তুতি শুরু করেছিল দলটি।

বিজেপি সূত্রে দাবি, গত ৪২ বছরে প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষ্য কখনও শোভাযাত্রা বের করেনি তারা। ৪২ বছরে এই প্রথম প্রতিষ্ঠা দিবসে শোভাযাত্রা বের করছে দলটি৷ ফলে এবারের এই শোভাযাত্রায় জোর দেওয়া হয়েছে এলাকা ভিত্তিক অনুষ্ঠানের উপর। দলের তরফে জানানো হয়েছে, প্রতিটি কর্মীকে এই শোভাযাত্রায় অংশ নিতে হবে, এবং প্রতিটি এলাকা, জেলা এবং মণ্ডলে অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে হবে। প্রত্যেকে দলের পতাকা হাতে নিয়ে হাঁটবেন শোভাযাত্রায়। শুধু পতাকাই নয়, দলের নীতি লেখা প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়েও হাঁটত্র হবে কর্মীদের।

দলটির দাবি, এবছর প্রতিষ্ঠা দিবসটি শুধু তাদের জন্য নয়, দেশের জন্যও বিশেষ হতে চলেছে। সারা দেশে সামাজিক ন্যায়বিচার পক্ষ উদযাপন করার কথা ঘোষণা করেছে বিজেপি। সেই কারণেই ৭ থেকে ২০ এপ্রিল একাধিক কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। কেন্দ্রের জনকল্যাণমূলক প্রকল্পগুলি সমাজের প্রতিটি স্তরের মানুষের কাছে তুলে ধরা হবে এর মাধ্যমে। ১২এপ্রিল দেশ জুড়ে টিকা দিবস উদযাপনের ডাকও দিয়েছে বিজেপি সরকার। ১৩ এপ্রিল পালিত হবে গরীব কল্যাণ অন্ন যোজনা। এরপর পালিত হবে বাবা সাহেব আম্বেদকরের জন্মবার্ষিকীও।