টাইমলাইনখেলাক্রিকেট

ভারতীয় দলে করোনার থাবা, মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হলেন ৬ ক্রিকেটার

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: ভারত তাদের অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ম্যাচটি খেলেছে আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে একটি ক্ষয়প্রাপ্ত দল নিয়ে কারণ দলের ৬ জন খেলোয়াড়ের করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তবুও, তারা ১৭৪ রানের ব্যবধানে একটি বিশাল জয় পেয়েছে। বিশ্বকাপ আয়োজক দেশে একটি করোনার বিশাল প্রাদুর্ভাবের কারণে অবস্থা আরও করুন হওয়ায় পরিস্থিতি বর্তমানে খারাপ হচ্ছে। ক্যাপ্টেন যশ ধুল, সহ-অধিনায়ক শাইক রশিদ, সিদ্ধার্থ যাদব এবং আরাধ্য যাদব করোনায় আক্রান্ত। মানব পরখ এবং ভাসু ভাতস-দের মধ্যেও করোনা কিছু লক্ষণ দেখা গিয়েছে।

বুধবার স্কোয়াডের অনেক সদস্যের পরীক্ষায় ফল পজিটিভ আশায় বিসিসিআই ৫ জন রিজার্ভ ক্রিকেটারকে ওয়েস্ট ইন্ডিজে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়। করোনা আক্রান্ত ক্রিকেটারদের জন্য বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইন সময় ১০ দিন। এটা বোঝায় যে ভারত শনিবার উগান্ডার বিরুদ্ধেও একই ভাঙাচোরা স্কোয়াড নিয়ে খেলবে কারণ তাদের কোনো বিকল্প ফিল্ডার বা ক্রিকেটার নেই।

আইসিসির এক বড় পদাধিকারী অ্যালেক্স মার্শাল টুর্নামেন্টের আগে বলেছিলেন যে “কেবলমাত্র একটি দলের মধ্যে একটি ইতিবাচক PCR পরীক্ষার ফলাফল নিবন্ধন করার ফলে ম্যাচগুলি স্বয়ংক্রিয়ভাবে স্থগিত বা বাতিল করা হবে না।” ফলে দলে ১১ জন ফিট খেলোয়াড় থাকলে, ভারতকে নির্ধারিত ম্যাচ খেলতে হবে।

কিন্তু যদি তাদের স্কোয়াডে ১১ জনের কম ক্রিকেটার থাকে, তাহলে প্রতিযোগিতার ইভেন্ট টেকনিক্যাল কমিটি ভারতের ম্যাচ স্থগিত করবে বা ভেন্যু পরিবর্তন করবে। এই নিয়মটি এমন বিপর্যয়কর পরিস্থিতিতে পড়া প্রতিটি দলের জন্য প্রযোজ্য। বিসিসিআই ঘোষণা করেছে যে অভিষেক পোরেল, উদয় শাহরান, রিসিথ রেড্ডি, আনশ গোসাই এবং পি.এস. সিং রাঠোর ব্যাকআপ বিকল্প হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজে যাবেন। টুর্নামেন্ট শুরুর পরেই বাংলার তরুণ প্রতিভাবান অভিষেকের সুযোগ না পাওয়া নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছিল। এখন তার ভাগ্য তাকে নিয়ে যাচ্ছে বিশ্বকাপের দলে।

Related Articles

Back to top button