চিনের লুকোচুরির দিন শেষ! ড্রাগনকে কড়া বার্তা দিয়ে সমুদ্রে পূর্বাঞ্চলীয় বহর মোতায়েন ভারতীয় নৌবাহিনীর

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: চিনকে (China) দমন করতে দক্ষিণ চিন সাগরে পূর্বাঞ্চলীয় বহর মোতায়েন করেছে ভারতীয় নৌবাহিনী (Indian Navy)। সম্প্রতি ভারতীয় নৌবাহিনীর ৩ টি যুদ্ধজাহাজ সিঙ্গাপুরে পৌঁছনোর পর এই বিষয়টি জানা যায়। এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, পূর্বাঞ্চলীয় নৌবহরের ফ্ল্যাগ অফিসার কমান্ডিং রিয়ার অ্যাডমিরাল রাজেশ ধনকরের নেতৃত্বে ভারতীয় নৌবাহিনীর ৩ টি যুদ্ধজাহাজ, গাইডেড মিসাইল ডেস্ট্রয়ার INS দিল্লি, দীপক ক্লাস ফ্লিট ট্যাঙ্কার INS শক্তি এবং অ্যান্টি সাবমেরিন ওয়ারফেয়ার কর্ভেট INS কিল্টন, গত সোমবার অর্থাৎ ৬ মে সিঙ্গাপুরে পৌঁছে যায়। সিঙ্গাপুর নৌবাহিনী এবং ভারতের হাইকমিশনার ৩ টি নৌ রণতরীকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানায়।

কি জানিয়েছে ভারতীয় নৌবাহিনী: এই প্রসঙ্গে ভারতীয় নৌবাহিনী জানিয়েছে যে, এই সফরটি দক্ষিণ চিন সাগরে ভারতীয় নৌবাহিনীর পূর্বাঞ্চলীয় নৌবহরের অপারেশনাল মোতায়েনের অংশ। বেশ কিছু কর্মসূচি ও কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে দুই সামুদ্রিক দেশের মধ্যে দীর্ঘস্থায়ী বন্ধুত্ব ও সহযোগিতাকে আরও জোরদার করতে এই সফরের পরিকল্পনা করা হয়েছে। বন্দরে জাহাজের অবস্থানের সময়ে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণের পরিকল্পনা করা হয়েছে।

যার মধ্যে রয়েছে ভারতীয় হাই কমিশনের সাথে যোগাযোগ, সিঙ্গাপুর প্রজাতন্ত্রের নৌবাহিনীর সাথে পেশাদার আলোচনা এবং সেইসাথে অ্যাকাডেমিক এবং সম্প্রদায়ের আউটরিচ সহ বিভিন্ন কার্যক্রমের পরিকল্পনা করা হয়েছে। যেগুলি মূলত দুই নৌবাহিনীর ভাগ করে নেওয়া মূল্যবোধকে প্রতিফলিত করে।

আরও পড়ুন: IPL-এর মাঝেই এবার পাকিস্তানকে বড় ধাক্কা দেবে BCCI! মাস্টারপ্ল্যান তৈরি বোর্ডের

ভারত ও সিঙ্গাপুরের মধ্যে পুরনো নৌ-সম্পর্ক: প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, ভারতীয় নৌবাহিনী এবং সিঙ্গাপুর প্রজাতন্ত্রের নৌবাহিনীর মধ্যে একটি শক্তিশালী সম্পর্ক রয়েছে। শুধু তাই নয়, ৩ দশক ধরে বিস্তৃত সহযোগিতা, সমন্বয় ও নিয়মিত সফর, সর্বোত্তম অনুশীলনের বিনিময় এবং পারস্পরিক প্রশিক্ষণের ব্যবস্থার রেশ বজায় রয়েছে। যা বর্তমান মোতায়েন দুই নৌবাহিনীর মধ্যে সুদৃঢ় সম্পর্ককে নির্দেশ করে।

আরও পড়ুন: ভারতীয় দলের নতুন জার্সিতে আছে একটি তারা! এর সাথে লুকিয়ে রয়েছে গৌরবের ইতিহাস

চিনের বিরুদ্ধে কঠোর হস্তক্ষেপ করা হবে: এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, চিন দক্ষিণ চিন সাগরের ৮০ শতাংশ এলাকা দাবি করে। তবে, দক্ষিণ চিন সাগরের সীমান্তবর্তী অন্যান্য দেশগুলি এই দাবি অস্বীকার করেছে। এদিকে, ভারতের সঙ্গে চিনের সীমান্ত নিয়ে পুরনো বিরোধ রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে, দক্ষিণ চিন সাগরে ভারতীয় যুদ্ধজাহাজের উপস্থিতি চিনের উত্তেজনা যে বাড়িয়ে দেবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। অপরদিকে, চিনের নৌবাহিনীও ভারত মহাসাগরে তাদের উপস্থিতি বাড়াচ্ছে। এমতাবস্থায়, ভারতীয় নৌবাহিনীর নজরদারির মাঝেই এবার চিনকে দক্ষিণ চিন সাগরের দিকে নজর রাখতে হবে।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর