এবার রাখিতেও লেখা ‘জয় বাংলা’! কালনার এই সংস্থা পেল ৭ লক্ষ রাখির বরাত, চমকে দেবে টাকার অংক

বাংলা হান্ট ডেস্ক : সামনেই রাখি উৎসব। তা নিয়েই এবার বেশ সাজো-সাজো রব শুরু হয়েছে বাংলা জুড়ে। আর বাংলার রাখি মানেই কালনা (Kalna)। এই এলাকার রাখি শুধু এ রাজ্যেই নয়, অন্য রাজ্য তো বটেই, এমনকী বিদেশেও পাড়ি দেয়। তাই কালনার রাখি শিল্প ক্রমশ হয়ে উঠেছে বাংলার গর্ব। আর এবছর তো আলাদাই ব্যাপার।

খুশির আমেজ রাখী শিল্পে : রাখি বন্ধন উৎসবের আগে রাজ্যের সংস্কৃতি দিবস পালনে ৬ লক্ষ ৭২ হাজার সরকারি প্রকল্পের ‘জয় বাংলা’ রাখির বরাত পেল কালনার একটি সংস্থা। আর এই বিরাট ব্যবসার সুযোগ পেয়ে চরম খুশি রাখি শিল্পীরা। দিনরাত এক করে রাখী তৈরিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন তাঁরা।

rakhi

কী উদ্যোগ সরকারের? এখানেই শেষ নয়, রাখি শিল্পীদের আরও দক্ষ করে তুলতে ‘উৎকর্ষ বাংলা’র উদ্যোগে ও কালনা উইভার্স এণ্ড আর্টিজেন ওয়েল ফেয়ার সোসাইটির সহযোগিতায় রাখি তৈরির প্রশিক্ষণ শিবিরও করা হয়। কালনার শ্যামগঞ্জপাড়ার এই কর্মশালায় প্রশিক্ষিতদের হাতে তৈরি হয় রাজ্য সরকারের ‘জয় বাংলা’র কয়েক লক্ষ রাখি।

এবারও রাজ্য সরকারের ‘জয় বাংলা’ (Joy Bangla) লেখা রাখির বরাত পেয়েছেন বলে জানান সংস্থার সম্পাদক তপন মোদক। এছাড়াও খাদি দফতরের পক্ষ থেকে বেশ কয়েক হাজার রাখির বরাত পেয়েছেন বলে তিনি জানান। সবমিলিয়ে চলতি বছরে বেশ ফুলেফেঁপেই উঠেছে রাখির বাজার।

আরও পড়ুন : বিরাট আপডেট আবহাওয়া দফতরের! মুহূর্তে বদলে যাবে পরিস্থিতি, বৃষ্টি কমে বাড়বে গরম, ঘেমে-নেয়ে নাকাল হবে মানুষ

মুখ্যমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ রাখী শিল্পীরা : তপনবাবু বলেন, ‘এইবারও রাজ্য সরকারের যুবকল্যাণ দফতরের কাছ থেকে ৬ লক্ষ ৭২ হাজার জয় বাংলা লেখা রাখি ও খাদি দফতরের পক্ষ থেকে প্রায় দু’হাজার রাখির বরাত মিলেছে।’ তিনি আরও জানান, ‘অদক্ষ শিল্পীদের আরও দক্ষ করে তুলতে উন্নত প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। আর তাঁদের শিল্পনৈপুণ্যেই রাখি তৈরি করা হয়।এবারেও রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে রাখী তৈরীর বরাত মেলায় আমরা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ।’