টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

সপ্তমীর রাতে বর্ধমানে সাত বছরের শিশুকে ধর্ষণ! হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে নির্যাতিতা

বাংলাহান্ট ডেস্ক : একদিকে চলছে দেবী দুর্গার আরাধনা, অন্যদিকে ঘটছে নারী নির্যাতনের ঘটনা এই বাংলার বুকেই। পশ্চিম বর্ধমানের দুর্গাপুরে ষষ্ঠীর দিন এক নিষ্ঠুর ঘটনার সাক্ষী হলো এলাকাবাসী । উৎসবের মরসুমেই ধর্ষিত হতে হল সাত বছরের এক নাবালিকাকে। অভিযোগের তীর এক ২৮ বছর বয়স্ক যুবকের দিকে। এই মর্মান্তিক ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে সারা এলাকা জুড়ে।

পশ্চিম বর্ধমানের দুর্গাপুরের এক বর্ধিষ্ণু এলাকা ১ নম্বর ওয়ার্ডের ওয়াচিং প্লট। সেখানে শনিবার সন্ধ্যেবেলা অর্থাৎ ষষ্ঠীর দিন সন্ধ্যেবেলা ঘটে যায় এই মর্মান্তিক ঘটনাটি। স্থানীয় এলাকাবাসীদের সূত্রে খবর সেই দিন রাতে ওই নাবালিকাকে তাদেরই প্রতিবেশী এক যুবক ডেকে নিয়ে যায়। তারপর অনেক রাতে তাকে ধর্ষণ করে তার অর্ধমৃত দেহ ফেলে রেখে দিয়ে চলে যায়।

তাও কোনরকমে বাড়ি ফেরে সেই বালিকা। তাকে শারীরিকভাবে গুরুতর যখন অবস্থায় দেখে বাড়ির লোক বুঝতে পারে কী সর্বনাশ ঘটেছে তাদের বাচ্চা মেয়েটির সাথে এবং তৎক্ষণাৎ তারা মেয়েটিকে নিয়ে যায় বর্ধমান মহকুমা হাসপাতালে। কিন্তু সেখানে নাবালিকার শারীরিক অবস্থার দ্রুত অবনতি ঘটতে থাকে। তারপর সেখান থেকে তাকে স্থানান্তরিত করা হয় বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। বর্তমানে নাবালিকা সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছে।

অভিযুক্ত সেই ২৮ বছরের যুবকের নামে সেদিন রাতেই থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন নাবালিকার বাড়ির লোকজন। সেই অভিযোগের সূত্র ধরে সেই দিন রাতে পুলিশ গ্রেফতার করে অভিযুক্ত যুবককে। গোটা বিষয়টিকে খুঁটিয়ে তদন্ত করছে পুলিশ। রবিবার তাকে আদালতে তোলা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Related Articles