ভীনরাজ্যের পর্যটন কেন্দ্র নিয়ে বই লিখে বিশেষ সম্মাননা পেলেন বাঁকুড়ার এক স্কুল শিক্ষক

ইন্দ্রাণী সেন,বাঁকুড়া: ভীনরাজ্যের পর্যটন কেন্দ্র নিয়ে বই লিখে বিশেষ সম্মাননা পেলেন বাঁকুড়ার এক স্কুল শিক্ষক। সম্প্রতি ঝাড়খণ্ডের রাজ্যপাল দ্রৌপতি মুর্মু স্থানীয় পর্যটনের বিকাশের জন্য বাঁকুড়ার এক শিক্ষককে সম্মাননা প্রদান করেন।

   

বাঁকুড়ার ইন্দাস থানার অন্তর্গত ছোটগোবিন্দপুর এস এন পাঁজা হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক ডঃ প্রসেনজিৎ সরকার ১৯৭৫ সালের ২১ জানুয়ারী বাঁকুড়া শহরে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ রণজিত সরকার মা অঞ্জলি সরকার। ভূগোল ও ইতিহাসে এম এ পাশ করেছেন। সাথ সাথেই রইছে ডক্টরেট ডিগ্রী। বি.টি ও যোগা এডুকেশনে প্রথম শ্রেণিতে পাশ করেছেন। দেশ রাজ্য জেলা মহকুমা গ্রাম বাংলার সংস্কৃতি ঐতিহ্য নিয়ে লিখেছেন ৬০ টি বই। যা ইতিমধ্যেই জনমানসে সাড়া ফেলেছে। সাথে সাথেই রয়ছে ১১৯ টি গবেষণামূলক রচনা। রয়ছে একটি কবিতার বই ও।এই ভাবেই প্রতিনিয়ত পড়াশোনার সাথে সাথেই নিরলস বই লিখে চলেছেন


এলাকায় বাল্য বিবাহ রোধ কৃতি ছাত্র ছাত্রীদের পাশে দাঁড়ানো, হঠাৎ করে পড়াশোনা বন্ধ হতে বসা পড়ুয়াদের আলোর দিশারী হয়ে পথ দেখান তিনি। শিক্ষকতার পাশাপাশি স্কুলের নিয়মানুবর্তিতা, সংস্কৃতি ও শারীরিক শিক্ষার বিকাশেও বিশেষ ভূমিকা পালন করেন তিনি। সম্প্রতি রাজ্য সরকারের তরফে পেয়েছেন নির্মল বিদ্যালয় পুরস্কার। বিশেষ স্বীকৃতি স্বরূপ বাঁকুড়া জেলা পুলিশ উদ্যোগে নিজ স্কুলে স্থাপিত হয়েছে মহিলা বিকাশ পাঠাগার’ সাথে সাথেই স্কুলের পড়ুয়া জেলা ও রাজ্য স্তরের স্কুল ভিত্তিক অঙ্কন প্রতিযোগীতায় রাজ্য স্তরে বিশেষ প্রথম স্থান অধিকার করে।

তাঁর একাধিক বইয়ের আনুষ্ঠানিক প্রকাশ করেছেন প্রাক্তন পুলিশ সুপার বাঁকুড়া সুখেন্দু হীরা। সাথে সাথেই শিক্ষাক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য মিলেছে বাঁকুড়া প্রশাসনের তরফে মিলেছে একাধিক স্বীকৃতি।

সম্পর্কিত খবর