‘রামের পুজো করতে হিন্দু হতে হয় না’, খালি পায়ে মুম্বই থেকে অযোধ্যা চলেছেন মুসলিম তরুণী শবনম

বাংলা হান্ট ডেস্ক : ২২শে জানুয়ারি অযোধ্যায় রাম মন্দির (Ram Mandir) উদ্বোধন হতে চলেছে। সেইদিনের অনুষ্ঠানের জন্য প্রচুর ভক্তরা অপেক্ষা করছেন। এই অপেক্ষার উদাহরণস্বরূপ, এক মুসলিম মহিলা এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন, যা দেখে সবাই অবাক হয়ে গিয়েছেন। তিনি মুম্বাই (Mumbai) থেকে অযোধ্যা (Ayodhya) যাওয়ার জন্য পায়ে হেঁটে চলেছেন। ইনি হলেন শবনম শেখ (Shabnam Sekh), তার সঙ্গী রাজ শর্মা (Raj Sharma) এবং বিনীত পাণ্ডে (Vineet Pandey)। রামের দর্শন পাওয়ার উদ্দেশ্যে তিনি পায়ে হেঁটে চলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

   

এই রাম ভক্তের পাশাপাশি আরেকটি বিষয় আপনাদের জানিয়ে রাখি, কাশি এবং প্রয়োগরাজের ভক্তরাও মন্দির নির্মাণের জন্য ৪ লক্ষ টাকা দান করেছেন। শবনম শেখ জানিয়েছেন, ‘রামের পুজো করার জন্য যে হিন্দু হতে হবে তার তো কোনও মানে নেই। আমি প্রতিদিন ২৫ থেকে ৩০ কিলোমিটার হাঁটি। রামের দর্শনের জন্য আমি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি’। তিনি এ কথাও বলেন, ‘রামের পুজো করার জন্য কোনও নির্দিষ্ট ধর্মের হতে হবে, তেমনটা কিন্তু কোথাও লেখা নেই। আর নারী হোক বা পুরুষ সকলেই এই যাত্রায় অংশ নিতে পারেন।

মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, শবনমকে এই যাত্রাপথ শুরু করার জন্য অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে। তাকে অনেকেই কটূক্তি করেছেন, সে মুসলিম হয়ে কেন অযোধ্যা যাচ্ছেন, এই নিয়ে তাকে অনেক কথাও শুনতে হয়েছে। তবে তাদের যাত্রাপথে তাদের আশ্রয় এবং খাবারের জন্য পুলিশ তাদেরকে সাহায্য করেছেন। শবনমের পিঠের ব্যাগে লাগানো রয়েছে গেরুয়া পতাকা আর খালি পায়ে হেঁটে চলেছেন তিনি। তা দেখে অনেকেই পথের মধ্যে ‘জয় শ্রী রাম’ বলে অভিবাদন জানিয়েছেন।

sabnam 4

যদিও পথে এই অভিবাদন জানানোর মধ্যে অনেক মুসলিমরাও রয়েছেন। এই মুসলিম তরুণী আধ্যাত্মিক পরিপূর্ণতার জন্য ধর্মীয় সীমানা অতিক্রম করে ভক্তির উদ্দেশ্যে তার এই যাত্রা, তা সকলে কাছে প্রমাণ করেছেন। এছাড়া শবনমের যাত্রা একতার প্রতীক এবং তিনি প্রমাণ করেন যে প্রেম ও ভক্তির মধ্যে দিয়েই রামকে পাওয়া যায়। ইসলামে জন্ম নেওয়া এই তরুণীর রামের প্রতি তার অগাধ বিশ্বাস নিয়ে পায়ে হেঁটে পাড়ি দিতে চলেছেন ১,৪২৫ কিলোমিটার।