‘এই ভোটেই দুর্নীতিগ্রস্ত সরকারের বিদায়লগ্নের সূচনা হোক’, BJP-তে যোগ দিয়েই হুঙ্কার অভিজিতের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বিজেপিতে যোগদানের কথা আগেই ঘোষণা করেছিলেন। সেই মতো বৃহস্পতিবার গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নিলেন কলকাতা হাই কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় (Abhijit Ganguly)। আজ দুপুরে কলকাতায় বিজেপির সদর দফতরে গিয়ে দলে যোগদান করেন তিনি। রাজ্য বিজেপির সভাপতি সুকান্ত মজুমদার (Sukanta Majumdar) এবং বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) উপস্থিতিতে পদ্ম শিবিরের অংশ হয়ে উঠলেন।

রাজনীতির ময়দানে পা রাখার পরেই রাজ্য থেকে তৃণমূলকে উৎখাতের ডাক দেন অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। বিজেপিতে (BJP) যোগ দিয়ে তিনি বলেন, ‘আজ একেবারে নতুন জগতে পা দিলাম আমি। এই সর্বভারতীয় দলে, যেখানে মহান নেতা নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহের মতো মানুষজন আছেন, সুকান্ত মজুমদার, শুভেন্দু অধিকারী আছেন, তাঁদের উপদেশ প্রতি মুহূর্তে আমার লাগবে’। পাশাপাশি বিজেপির একজন শৃঙ্খলাবদ্ধ কর্মী হিসেবে কাজ করার ইচ্ছাপ্রকাশ করেন তিনি। দল যে দায়িত্ব দেবে, সেই দায়িত্ব নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করবেন বলেও জানান অবসরপ্রাপ্ত জাস্টিস গঙ্গোপাধ্যায়।

এরপর তৃণমূল (TMC) সরকারকে বিদায় জানানোর ডাক দিয়ে অভিজিৎবাবু বলেন, ‘আজ বিশেষ কিছু আর বলার নেই। শুধু এটুকু বলবো, আমাদের প্রথম উদ্দেশ্য হচ্ছে, এই লোকসভা নির্বাচনেই পশ্চিমবঙ্গ থেকে একটা দুর্নীতিগ্রস্ত দল, একটা দুর্নীতিগ্রস্ত সরকারের বিদায়লগ্নের সূচনা করা। যাতে ২০২৬ সালে আর তারা ক্ষমতায় না আসতে পারে’।

আরও পড়ুনঃ আচমকাই কান্না শুরু শাহজাহানের! ‘বাঘে’র চোখে জল দেখে থ খোদ CBI, তারপর যা হল…

এখানেই না থেমে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির ক্ষমতায় আসা দরকার বলেও মত প্রকাশ করেন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘পশ্চিমবঙ্গের প্রয়োজনে বিজেপির ক্ষমতায় আসা খুব দরকার’। অভিজিৎবাবুর কথায়, বাংলা ক্রমাগত পিছিয়ে পড়ছে দেখে বাঙালি হিসেবে ভীষণ কষ্ট হয় তাঁর। সেই কারণে বিজেপির মতো সর্বভারতীয় দলে যোগদান করেছেন। এখান থেকেই দুর্নীতিগ্রস্ত দল, দুর্নীতিগ্রস্ত সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই করবেন বলে জানান তিনি।

mamata banerjee abhijit ganguly

মৌখিক ঘোষণার পর আজ আনুষ্ঠানিকভাবে গেরুয়া শিবিরের অংশ হলেন অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। দলে যোগ দেওয়ার আগে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে বলে খবর। শোনা যাচ্ছে, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে দেখা যেতে পারে অবসরপ্রাপ্ত জাস্টিস গঙ্গোপাধ্যায়কে। এখনও এই নিয়ে স্পষ্টভাবে কিছু না জানালেও, দল যা দায়িত্ব দেবে তা নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর