টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

‘এক ডাকে অভিষেক’, মানুষের পাশে দাঁড়াতে হেল্পলাইন চালু ডায়মন্ড হারবারের সাংসদের

বাংলাহান্ট ডেস্ক : গত বিধানসভা ভোটের আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মাস্টারস্ট্রোক ছিল ‘দিদিকে বলো।’ ‘দিদিকে বলো আদৌও সফল হয়েছিল কিনা তা নিয়ে মতবিরোধ থাকলেও জনমানসের যে এর একটা প্রভাব ছিল তা বলাই যায়। তার সুফলও লাভ করে তৃণমূল। তাই সেই ‘দিদিকে বলো’-র অনুকরণেই এ বার ‘অভিষেককে বলো।’ নিজের লোকসভা কেন্দ্র ডায়মন্ড হারবারের জন্য একটি হেল্পলাইন নম্বর চালু করলেন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার সেই হেল্পলাইন নম্বরটি প্রকাশ্যেও এসেছে। নতুন এই কর্মসূচির নাম–’এক ডাকে অভিষেক!’ হেল্পলাইন নম্বরটি হল, ৭৮৮-৭৭৭৮৮৭৭। এই নম্বরে ফোন করলেই ডায়মন্ড হারবার লোকসভা এলাকার বাসিন্দারা তাদের সমস্ত সমস্যার সমাধান করতে পারবেন বলেই দাবি করা হয়েছে।

অভিষেকের এই পরিকল্পনার পিছনে রয়েছে একটি পেশাদারি সংস্থা। তাঁদের পরামর্শ এবং প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়েই এই নতুন কর্মসূচি নিতে চলেছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। সাংসদের উদ্যোগে এলাকায় হয়েছে এমপি কাপ, এ ছাড়াও, তাঁর সাংসদ কার্যালয়ের দরজা মানুষের জন্য সবসময়ই খোলা থাকে বলে জানান বজবজের বিধায়ক অশোক দেব। করোনা মহামারির সময় নিজ উদ্যোগে ক্যান্টিনও চালু করেন তিনি। এ ছাড়া বিভিন্ন সময় তাঁর লোকসভার কেন্দ্রের সাতটি বিধানসভা ক্ষেত্রে বিখ্যাত গায়ক-গায়িকাদের এনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়। তবে এ বাা নতুন হেল্পলাইন নম্বর চালু করে ডায়মন্ড হারবারবাসীর আরও কাছে পৌঁছানোর জন্য সচেষ্ট হলেন তিনি। দলীয় সূত্রের জানা যাচ্ছে, এই হেল্পলাইন নম্বরে ফোন করলে স্কুল-কলেজের ভর্তির সমস্যা থেকে শুরু করে চিকিৎসা সংক্রান্ত পরিষেবাও পাবেন মানুষ।

অভিষেকের এই উদ্যোগের মধ্যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচির ছায়া খুঁজে পাচ্ছেন অনেকেই। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে হতাশাজনক ফলাফলে পর ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শে একটি হেল্পলাইন নম্বর চালু করেন মমতা। ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে সেই কর্মসূচির সুফলও পান তৃণমূল নেত্রী। পশ্চিমবঙ্গে এই প্রথম কোনও জনপ্রতিনিধি সরাসরি নিজের কেন্দ্রের জন্য হেল্পলাইন নম্বর চালু করলেন। এই প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ দিচ্ছেন অনেকেই।

Related Articles

Back to top button