টাইমলাইনটেক নিউজভারত

দেশজুড়ে চলা কৃষক আন্দোলনের মধ্যে ফের বড়সড় ধাক্কা খেল JIO! মাথায় হাত মুকেশ আম্বানির

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ এয়ারটেল আবারও ওয়্যারলেস গ্রাহক ( Wireless Subscriber ) অর্থাৎ মোবাইল গ্রাহক যুক্ত করার নিরিখে হারিয়েছে জিও-কে। টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অফ ইন্ডিয়া ( TRAI ) চলতি বছরের জানুয়ারি মাসের যে ডেটা প্রকাশ করেছে, তাতে দেখা যাচ্ছে মুকেশ আম্বানির ( Mukesh Ambani ) জিও ( Jio ) জানুয়ারিতে ১৯.৫ লক্ষ ওয়্যারলেস গ্রাহক যুক্ত করেছে, সেখানে এয়ারটেল যুক্ত করেছে ৫৮.৯২ লক্ষ। যার অর্থ প্রায় তিনগুণ বেশি। তবে এটা নতুন নয়, বিগত ছয় মাসে একইভাবে জিও-কে হারিয়ে উপরে উঠে আসছে এয়ারটেল ( Airtel )। ২০২০ এর আগস্ট থেকে চলে আসা এই ধারা এখনও বিদ্যমান।

অন্যদিকে তারযুক্ত অর্থাৎ ব্রডব্যান্ড কানেকশনের মত গ্রাহক সংখার বিচারে জিও আবার অনেকাংশে এগিয়ে। সেখানে প্রতি মাসেই এয়ারটেলের তুলনায় অনেক বেশি গ্রাহক যুক্ত হয়েছে জিও-তে। এখনও পর্যন্ত ৪১.০৭ কোটি সাবস্ক্রিপশন রয়েছে জিও-র, এয়ারটেলের রয়েছে ৩৪.৪৬ কোটি। জানুয়ারিতে প্রকাশিত তথ্য থেকে জানা যাচ্ছে জিও মোট গ্রাহকের প্রায় ৫৫ শতাংশের বাজার দখল করে রেখেছে। আর এয়ারটেল সেখানে মাত্র ২৪.৩ শতাংশ। অর্থাৎ সামগ্রিক সাবস্ক্রিপশনের বিচারে টেলিকম বাজারে এখনও জিওর নেতৃত্ব অব্যাহত।

উল্লেখ্য, ভোডাফোন ( Vodafone ) ও আইডিয়ার ( Idea ) সংমিশ্রণ ‘ভি’ ১৪ মাস পরে জানুয়ারিতে তাদের গ্রাহক সংখ্যা বাড়িয়েছে। এই সময়ের মধ্যে তাদের গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে ১৭.১০ লক্ষ।

আরও একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, দেশজুড়ে চলা কৃষক আন্দোলনের ( Farmers Protest ) মধ্যে পাঞ্জাবে জিও ৭৪৮ হাজারেরও বেশি ব্যবহারকারীকে হারিয়েছে। এই অর্থে এটি গুরুত্বপূর্ণ যে কৃষি আইন ( Farm Law ) চালু হওয়ার পর থেকেই অভিযোগ করা হচ্ছে যে, এই আইনের মাধ্যমে রিলায়েন্সের ( Reliance ) মতো বড় সংস্থাগুলি উপকৃত হবেন। আর যেহেতু পাঞ্জাব আইনগুলির বিরুদ্ধে আন্দোলনের মূল কেন্দ্র। সেটিই পাঞ্জাবে জিওর এহেন পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার মূল কারণ বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

জানিয়ে দি, ২০২০ সালের ১১ ডিসেম্বর জিও ট্রাই’র কাছে অভিযোগ করেছিল যে প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থা এয়ারটেল ও ভোডাফোন তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। তবে এয়ারটেল এবং ভোডাফোন স্পষ্টভাবে সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে। গত মাসে জিও-র তরফে জারি করা এক বিবৃতিতে বলা হয়েছিল যে করোনার কারণে ব্যবসায়ে সমস্যা হয়েছে। সেই বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছিল যে, কিছু সময়ের জন্য রিলায়েন্স গ্রুপের বিরুদ্ধে যে অপপ্রচার চালানো হয়েছে তার প্রভাবও জিওর ব্যবহারকারী বেসে পড়েছে।

Back to top button