‘আর টাকা চাইব না…’, হকের পাওনা চাইতে গিয়ে মিলেছিল মারধোর, বছর সত্তরের কথা শুনে স্তব্ধ বাংলা

বাংলা হান্ট ডেস্ক : সন্দেশখালির (Sandeshkhali) ত্রাস শেখ শাহজাহান (Sheikh Shahjahan) ফেরার হতেই তার বিরুদ্ধে অভিযোগের ঝাঁপি খুলে বসেছে এলাকার মানুষজন। গ্রামের হিন্দু মহিলাদের উপর হওয়া অকথ্য অত্যাচারের বিবরণ শুনে গায়ে কাঁটা দিয়ে উঠছে যেন। কেউ বলছে, বৌমা দেখতে সুন্দরী বলে তাকে ভিনরাজ্যে রেখে আসা হয়েছে। আর এবার মুখ খুললেন বয়সের ভারে ন্যুব্জ, অসহায় এক বৃদ্ধ।

   

সন্দেশখালির বাসিন্দা প্রভাস ভুঁইয়া, বয়স বছর সত্তরের আশেপাশে। বৃদ্ধর অভিযোগ, ভেড়ির জন্য লিজ দেওয়া জমির জন্য পাওনা টাকা এখনও বকেয়া‌। বছরের পর বছর টাকা চেয়ে যাচ্ছেন তবে তা তিনি পাচ্ছেনা। বছর সত্তরের এই বৃদ্ধার কথায়, ২০০৯ সাল পর্যন্ত জমি লিজ দেওয়ার কিছু টাকা তিনি পেয়েছেন। তবে তারপর থেকে তার হাতে আর কোনও টাকা আসেনি‌।

এরপর যখনই টাকা চাইতে গেছেন টাকা তো মেলেইনি, উল্টে মিলেছে মারধোর, হুমকি, শাসানি। শেষমেষ নাকি মুচলেকা দিয়ে তবেই রেহাই পেয়েছেন শেখ শাহজাহানের দলবলের হাত থেকে। এইদিন সাংবাদিকদের সামনে বয়ান দিতে গিয়ে নিজের ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরলেন সত্তর বছরের প্রভাস বাবু।

আরও পড়ুন : নিমেষেই ধ্বংস হবে ব্যালিস্টিক মিসাইল, ভয়ঙ্কর এক অস্ত্র বানাচ্ছে ভারত! নাম শুনেই কাঁপবে শত্রুরা

ক্ষোভ উগরে দিয়ে জানালেন কোন পরিস্থিতিতে পড়ে ‘আর টাকা চাইবে না’ মর্মে মুচলেকা দিতে হয়েছিল তাকে। এইদিন সাংবাদিকরা যখন তাকে জিজ্ঞেস করেন যে, তিনি জমি লিজের টাকা পেতেন কি না? জবাবে প্রভাসবাবু বলেন, ‘আগে পেতাম, এখন তো আর দেয়না। তিনি বলেন, টাকা চাইতে গেলেই সইতে হয় চোখ রাঙানি।

আরও পড়ুন : অবশেষে কাটল জট! কংগ্রেসের হাত ধরল সপা, ‘যার শেষ ভালো তার সব ভালো’, বলছেন অখিলেশ

প্রভাসবাবুর অভিযোগের তীর এলাকার তৃণমূল নেতৃত্ববৃন্দদের দিকেই। বছর সত্তরের এই বৃদ্ধের ধারণা, তিনি বিজেপি করেন বলেই হয়ত তার সাথে এই জোর জুলুম। তাকে এবং তার ছেলেকে কান ধরে উঠবস অবধি করতে হয়েছে বলে অভিযোগ তার। তিনি আরও বলেন, ‘বিজেপি করেছি বলে ছেলেদের শাসাচ্ছে। আমি বাবা হয়ে কি দেখব চুপ করে! আমি ছুটে গিয়ে পা ধরলাম। বললাম ছেলেকে মেরো না।’ তার ছেলের রিকশা চালানোও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছেন তিনি।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর