টাইমলাইনফুটবলখেলা

হাতে নেই ফুটবলার, তার ওপর একের পর এক চোটে জর্জরিত ইস্টবেঙ্গল, এবার চোট পেলেন অনিকেত যাদব

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: ইস্টবেঙ্গলের প্রাক মরশুম অনুশীলনে চোট পাওয়ার তালিকায় এবার যুক্ত হলো অনিকেত যাদবের নাম। সোমবার অনুশীলনে পায়ের পেশিতে চোট পান তিনি। এরপর পায়ে বরফ বেঁধে মাঠের ধারে বসে থাকতে দেখা যায় তাকে। তবে শোনা গেছে অনিকেতের চোট গুরুতর নয়। দু-একদিনের মধ্যেই চোট সারিয়ে তিনি অনুশীলনে যোগ দেবেন, এই ব্যাপারে আশাবাদী ম্যানেজমেন্ট।

ইস্টবেঙ্গলের তারকা বাঙালি ডিফেন্ডার সার্থক গলুই। অনেকেই মনে করছেন খেলোয়াড়দের চোটের জন্য দায়ী ইস্টবেঙ্গল মাঠ। সঠিক পরিচর্যার অভাবে মাঠের অবস্থা খুব একটা ভালো নয়। কিছুদিন আগেই ইস্টবেঙ্গলের সহকারী কোচ বিনো জর্জ ইস্টবেঙ্গল ক্লাব ঘুরে ইস্টবেঙ্গলের নিজস্ব মাঠকে দেশের সেরা বলেছিলেন। কিন্তু প্রধান কোচ স্টিফেন কনস্ট্যানটাইন সেই মাঠ থেকে খুব সন্তুষ্ট ছিলেন না। অনুশীলনের জন্য অন্য মাঠের ব্যবস্থা করতে বলেছিলেন ম্যানেজমেন্টকে। কিন্তু তার আগেই দুটি অনভিপ্রেত ঘটনা ঘটে গেল।

এমনিতেই স্টিফেন কনস্ট্যানটাইনের অনুশীলন খুবই কড়া মানের। যার জন্য আজ মঙ্গলবার ফুটবলারদের অনুশীলন বন্ধ রাখা হয়েছে। শুধু জিমেই গা ঘামাবেন ফুটবলাররা। অন্যান্যদিন ফুটবলারদের শ্যুটিং দক্ষতা নিয়ে কাজ করেছেন প্রাক্তন ভারতীয় কোচ। গোলপোস্ট লক্ষ্য করে নিতে হয়েছে শট। যতক্ষন না ফুটবলাররা গোলপোস্টে বল মারতে পারছেন ততক্ষণ তাদের জল পান করায় ছিল নিষেধাজ্ঞা।

এরমধ্যে ইস্টবেঙ্গল ভক্তদের জন্য ভালো খবর একটাই। ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে অভিজ্ঞ গোলরক্ষক শুভাশীষ রায় চৌধুরী ফের মাঠে ফেরার জন্য প্রস্তুত। তিনি গত কয়েকদিন ইস্টবেঙ্গলের অনুশীলনে অনুপস্থিত ছিলেন। বুধবার থেকে তিনি ফের বাকি ফুটবলারদের সঙ্গে যোগ দেবেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। প্রাথমিক মেডিক্যাল চেক-আপে তার কিছু সমস্যা ধরা পড়েছিল। তার পরেও তাকে গ্রীন সিগন্যাল দেওয়া হচ্ছে।

Related Articles