টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

‘বাংলার ৩৬ কোটি বাড়িতে গিয়ে সার্ভে করেছে আশা কর্মীরা’, মমতা ব্যানার্জীর মন্তব্যে ট্রোল শুরু স্যোশাল মিডিয়ায়

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ‘পশ্চিমবঙ্গের (West bengal) প্রায় ৩৬ কোটি বাড়িতে গিয়ে আশা ওয়ার্কারা করোনা পরিস্থিতিতেও সার্ভে করে এসেছে, তাই তাদের ১ হাজার টাকা করে বেতন বাড়িয়ে দিলাম’, এমনটাই মন্তব্য করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী (Mamata Banerjee)। মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্য ঘিরে ইতিমধ্যেই স্যোশাল মিডিয়ায় ট্রোল শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে পুজো উদ্যোক্তাদের সঙ্গে বৈঠক চলাকালীন নানারকম নতুন দিশা দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। সিভিক ভলেন্টিয়ারদের ১ হাজার টাকা বেতন বাড়ানো থেকে শুরু করে সেইসঙ্গে পুজো কমিটি গুলোকে ৫০ হাজার টাকা দিয়ে পুজোয় সাহায্য করার কথাও ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী।

এমনকি পুজোর মাসে প্রায় ৮১ হাজার হকারকে পুজো উপলক্ষে ২ হাজার টাকা করে ভাতা দেওয়ার ঘোষণাও করলেন তিনি। লকডাউনে তাদের ব্যবসা বন্ধ থাকায়, তাদের জন্য দিল দরিয়া হতেও দেখা গেল মুখ্যমন্ত্রীকে। তাঁর কণ্ঠে শোনা গেল, ‘এই টাকা দিয়ে এবছর পুজোয় তাঁরা অন্তত তাদের সন্তানদের একটা করে নতুন জামা কিনে দিতে পারবেন’।

সেইসঙ্গে বেতন বৃদ্ধি করলেন রাজ্যের আশা কর্মীদেরও। আশা কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি প্রসঙ্গে বললেন, ‘বাংলার প্রায় ৩৬ কোটি বাড়িতে গিয়ে আশা ওয়ার্কারা করোনা পরিস্থিতিতেও নিজেদের প্রাণের তোয়াক্কা না করেই, সার্ভে করে এসেছে। তাই উপায় না থাকলেও একটু সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিচ্ছি তাদের দিকে। অক্টোবর থেকেই তাদের বেতন ১ হাজার টাকা করে বাড়িয়ে দিলাম’।

পশ্চিমবঙ্গের জনসংখ্যা যেখানে ১০ কোটি, সেখানে আশা ওয়ার্কারা বাংলার ৩৬ কোটি বাড়িতে গেলেন কিভাবে, এই নিয়ে বিরোধীদের মধ্যে উঠেছে নানান প্রশ্ন। মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্যকে ঘিরে হাসির রোল উঠেছে স্যোশাল মিডিয়ায়।

Back to top button