টাইমলাইনভাইরাল

এবার ইউটিউবার করলেন মানহানির অভিযোগ, কান্তা প্রসাদ বললেন ভুল প্রমাণিত হলে ক্ষমা চেয়ে নেব

Viral video : ভাইরাল ভিডিও এর দৌলতে রাতারাতি ভাগ্য ফিরে যাওয়া বাবা কে ধাবার মালিক কান্তা প্রসাদ ইউটিবার গৌরব ভাসানের বিরুদ্ধে থানায় আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। এবার পালটা মানহানির অভিযোগ করলেন ঐ ইউটিবার।

সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল ভিডিও এর দৌলতে রাতারাতি বদলে গিয়েছিল গরীব দম্পতির ভাগ্যের চাকা। দিল্লির মালব্য নগরে একটি ছোট ধাবা চালাতেন বৃদ্ধ দম্পতি। সামাজিক মাধ্যমের জন্য একটি ভিডিও করতে সেখানে উপস্থিত হয়েছিলেন এক ইউটিবার। সেখানে ক্যামেরার সামনেই বিক্রি না হওয়ায় কান্নায় ভেঙে পড়েন বৃদ্ধ।

২৪ ঘন্টার মধ্যে সেই ভিডিওটি এতটাই ভাইরাল হয়ে যায় যে লোকেরা নিজেই তাদের সহায়তা করতে পৌঁছে যায়। আম আদমি পার্টির বিধায়ক সোমনাথ ভারতীও সহায়তার জন্য এগিয়ে আসেন।

ভিডিওটি বসুন্ধরা নামের এক টুইটার ব্যবহারকারী শেয়ার করেন। পোস্ট হতেই তুমুল ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিও। বৃদ্ধ দম্পতির মুখে হাসি ফিরিয়ে দেবার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েন নেটিজেনরা।

পরদিনই ঐ দোকানের সামনে উপচে পড়ে ভিড়। বিভিন্ন এলাকা থেকে বাবা কি ধাবা নামের এই দোকানে খাবার খেতে যায় সাধারণ মানুষ। যে দোকানে একেবারেই বিক্রি ছিল না রাতারাতি বিক্রি বেড়ে হাসি ফুটে ওঠে বৃদ্ধ দম্পতির মুখে।

কিন্তু এবার ঐ ইউটিউবারের বিরুদ্ধেই থানায় অভিযোগ জানালেন বৃদ্ধ দোকানী। তার অভিযোগ যে ঐ ইউটিবার তার সাহায্যের জন্য যে টাকা এসেছে তা আত্মসাৎ করেছে। পাশাপাশি এখন তার দোকানে খরিদ্দারও আসে না। যারা আসেন তারাও শুধু সেলফি তোলার জন্য।

এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দাবি নস্যাৎ করে ঐ ইউটিউবার জানিয়েছেন, আমি যখন ভিডিওটি শ্যুট করেছি তখন আমি জানতাম না যে এটি এত বড় হয়ে উঠবে। আমি চাইনি যে লোকেরা বাবাকে (প্রসাদ) হয়রানি করবে তাই আমি আমার ব্যাঙ্কের বিবরণগুলি ভাগ করে নিই …।

পাশাপাশি এই ইউটিউবারের বিরুদ্ধে বাবা কে ধাবার জন্য আসা ২০ থেকে ২৫ লাখ নয়ছয়ের অভিযোগ করেছেন অন্য ইউটিউবাররা। তাদের বিরুদ্ধে তিনি আইনি পদক্ষেপ নেবেন বলেও জানিয়েছিলেন। তারপরেই তিনি ঐ বৃদ্ধের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগ করেন। যদিও ঐ বৃদ্ধ জানিয়েছেন, তার অভিযোগ ভুল প্রমানিত হলে তিনি ক্ষমা চাইবেন।

 

 

 

Back to top button