টুক করে চলে যান বাগোরা, দেখে হবেন মাতোয়ারা! এই পাহাড়ি গ্রামে গেলেই মনে হবে, এ যেন সাক্ষাৎ স্বর্গ

বাংলাহান্ট ডেস্ক : কার্শিয়াংয়ের খুব কাছেই অবস্থিত ছোট্ট সুন্দরী পাহাড়ি গ্রাম বাগোরা (Bagora)। যারা দু দিনের ছুটিতে খুব শান্ত পরিবেশে পাহাড়ে দিন কাটাতে চাইছেন তারা এই গ্রামে ঘুরে যেতে পারেন। এখান থেকে ৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত চিমনি গ্রাম। এখানকার প্রাকৃতিক ও ঐতিহাসিক বৈশিষ্ট্য অবাক করে দেবে আপনাকে।

   

বিভিন্ন ঋতুতে এই গ্রামের রূপ ভিন্ন। শীতকালে এই গ্রামের প্রাকৃতিক শোভা আপনার মনকে বিগলিত করবে। কার্শিয়াংয়ের অত্যন্ত নির্জন একটি গ্রাম বাগোরা। এই গ্রামটি কার্শিয়াং পাহাড়ের প্রায় উঁচুতে। ভগবান যেন সৃষ্টি সুখের উল্লাসে নিজের হাতে এই গ্রামটি তৈরি করেছেন। এই গ্রামটি ছবির মতো সুন্দর।

এই গ্রামের পাহাড় আপনাকে দুহাত মেলে স্বাগত জানাবে। এই গ্রামের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য প্রত্যেকটি প্রকৃতি প্রেমের কাছে একটি দৃষ্টান্ত। শান্ত নিরিবিলি সবুজ পাহাড় এখানকার রূপের এক অনন্য নজির। মন ভালো করে দেওয়া পাইন গাছের বন, রাস্তার দু’ধারের চা বাগান পর্যটকদের নিয়ে যাবে এক অনন্য উচ্চতায়।

বাগোরা যাওয়ার গাড়ি পেয়ে যাবেন শিলিগুড়ির তেনজিং নোরগে বাস টার্মিনাস, দার্জিলিং মোড়, এনজেপি অথবা বাগডোগরা এয়ারপোর্ট থেকে। সময়ের নিয়মে শিলিগুড়ি শহর হয়ে উঠেছে ঘিঞ্জি। শিলিগুড়ি থেকে যত গাড়ি এগোবে বাগোরার দিকে, ততই মিলবে মুক্ত বাতাস। মেঘ রাজ্যে আপনি হারিয়ে যাবেন ক্রমশ।

hill5 1690306599

গাড়িতে বসেই আপনি শুনতে পাবেন নাম না জানা কত পাখির ডাক। এখানকার পাইন আর ওকের বন আপনাকে মোহিত করবে। তবে খুব বেশি হোমস্টে নেই বাগোরাতে। একটি সরকারি গেস্ট হাউস রয়েছে এই গ্রামে। তাই আসার আগে অবশ্যই খোঁজখবর নিয়ে আসবেন। চাইলে এখান থেকে ৪ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত চিমনি গ্রাম থেকেও ঘুরে আসতে পারেন।