ISRO-র অনুকরণ! এবার চাঁদে যাবে বাংলাদেশেরও স্যাটেলাইট, নয়া ইতিহাস গড়ার লক্ষ্যে পড়শিদেশ

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ইতিমধ্যেই ভারতের পক্ষ থেকে তিনবার চন্দ্র অভিযান সেরে ফেলা হয়েছে। এই তিনবারের মধ্যে প্রথম দুবার সম্পূর্ণভাবে না হলেও আংশিকভাবে ইসরোর (Indian Space Research Organisation) চন্দ্র অভিযান সফল হয়েছে। ভারতসহ গোটা বিশ্ব এখন তাকিয়ে ইসরোর চন্দ্রযান তিনের দিকে। কারণ ভারতের এই চন্দ্র অভিযান সফল হলে উপকৃত হবে পৃথিবীর একাধিক দেশ।

সাম্প্রতিককালে ভারতের চন্দ্রযান তিন সফলভাবে উৎক্ষেপণ হওয়ার পর মিডিয়াতে দেখা গেছে চীন নতুন ভাবে মহাকাশ গবেষণা নিয়ে উঠে পড়ে লেগেছে। অন্যদিকে মহাকাশ অভিযানকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন ধরনের মিমের বন্যা বয়ে গেছে পাকিস্তানকে নিয়ে। তবে এরই মধ্যে মহাকাশ গবেষণায় বাংলাদেশের পক্ষ থেকে নতুন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এবার চাঁদে স্যাটেলাইট পাঠাতে চলেছে বাংলাদেশ।

   

এই প্রথম বাংলাদেশ সিদ্ধান্ত নিল যে তারা চাঁদে স্যাটেলাইট পাঠাবে। সূত্রের খবর, সব ঠিকঠাক থাকলে ২০২৪ সালে চাঁদের মাটিতে নামবে বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইট। এটি সফল হলে বাংলাদেশ নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করবে। এর আগে এত গভীর মহাকাশ অভিযান বাংলাদেশ করেনি।এছাড়াও এটি প্রথম স্যাটেলাইট যেটি সম্পূর্ণভাবে বাংলাদেশের নির্মাণ হবে ও অপারেট হবে।

বাংলাদেশের (Bangladesh) চাঁদে পাঠানো প্রথম স্যাটেলাইটের নাম হবে ‘ফেমটো’। জানা গেছে বাংলাদেশের স্যাটেলাইটটি আকারে অনেক ছোট এবং সহজেই তা চন্দ্র কক্ষের চারপাশে ঘোরাফেরা করতে সক্ষম। চাঁদকে পরিক্রমা করে এই স্যাটেলাইট তথ্য পাঠাবেন নাসাকে এবং নাসা পরীক্ষা করে দেখবে যে সেখানে মানুষের বসবাসের যোগ্য পরিবেশ রয়েছে কিনা।

চাঁদের পরিবেশ কেমন, চাঁদে কি মানুষের বসবাসযোগ্য পরিবেশ রয়েছে? এই বিষয়ে গবেষণার জন্য নাসার পক্ষ থেকে বেছে নেওয়া হয়েছিল ২২টি দেশকে। এই ২২ টি দেশের মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ। এজেন্সি টু ইনোভেট-এর ফেমটো স্যাটেলাইটকে বেছে নেওয়া হয়েছে বাংলাদেশে অনেকগুলি টিমের মধ্যে প্রতিযোগিতা থেকে।

satellite 1

 

লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে চলতি বছরের ডিসেম্বর বা আগামী বছরের জানুয়ারির মধ্যে এটিকে চাঁদে পাঠানোর। নাসার সহযোগিতায় এই স্যাটেলাইট তৈরীর কাজে নিযুক্ত রয়েছেন ৫০ জন। জানা যাচ্ছে আকারে খুব ছোট এই স্যাটেলাইটের ওজন হতে চলেছে ২০ গ্রামের কম। স্যাটেলাইট পাঠানোর পরিকল্পনা যে বাংলাদেশ সরকারের কাছে ভীষণ গর্বের বিষয় তা বলাই বাহুল্য।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর