এই প্রাণীর বাড়িতে প্রবেশ ঘটলে বাড়তে পারে মৃত্যুর আশঙ্কা! গবেষণায় দাবি বিজ্ঞানীদের

বাংলাহান্ট ডেস্ক : করোনা মহামারীর কী প্রভাব পড়েছে পৃথিবীতে তার সাক্ষী থেকেছে সবাই। অনেক গবেষক বলেছেন যে এই মহামারীর পিছনে দায়ী বাদুর। এমনকি গবেষণায় বিজ্ঞানীরা এও বলেছেন ভবিষ্যতে যদি এই ভাইরাসের ফের সংক্রমণ ঘটে তাহলে তার মুখ্য কারণ হবে বাদুর (Bat)।

একাধিক গবেষণার তথ্য বলেছে ভবিষ্যতে বাদুর থেকে যেহেতু করোনা ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে, সেহেতু মানুষের থেকে এর দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। ল্যানসেট জার্নালেও কয়েকদিন আগে বাদুর নিয়ে একটি সতর্কবার্তা প্রকাশ হয়েছিল।

সেই রিপোর্টে বলা হয়েছে যদি বিশ্ব আগামী দিনে করোনা মহামারী থেকে নিস্তার পেতে চায় তাহলে অবশ্যই বাদুর থেকে দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। এছাড়াও গবেষণায় বলা হয়েছে বিশ্বের প্রতিটি দেশকে নিজস্ব আইন প্রণয়ন করতে হবে যাতে কোনো মানুষ বাদুর দ্বারা আক্রান্ত না হন।

এর আগের বিভিন্ন গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে বাদুরের জন্য বিভিন্ন রোগের বিস্তার ঘটে। বাদুর থেকে রেবিস, মারবার্গ ফিলোভাইরাস, হেন্দ্রা, নিপাহ প্যারামিক্সোভাইরাস, মার্স, করোনা ভাইরাস এবং ইবোলার মতো ভাইরাস এসেছে পৃথিবীতে। সেগুলো বহু মানুষের জীবন ধ্বংস করে দিয়েছে।

এবার তাহলে প্রশ্ন উঠতেই পারে তাহলে কেন বাদুর প্রজাতিকে নিশ্চিহ্ন করে দেওয়া হয় না? বিজ্ঞানীদের দাবি মানুষের জন্য বাদুর একদিক থেকে যেমন ক্ষতিকর, অন্যদিকে উপকারেও লাগে। বাদুর মশা খায়। এর ফলে পৃথিবীতে মশাবাহিত রোগের সংক্রমণ অপেক্ষাকৃত কম হয়ে থাকে।

f10p q ayaatg8s

বাদুরের ডানায় থাকে প্রাণঘাতি কিছু ব্যাকটেরিয়া। এই ব্যাকটেরিয়াগুলি মানুষের জন্য বিপদজনক। অতীতে এমন বহু প্রমাণ পাওয়া গেছে যেখানে বাদুরঘটিত ব্যাকটেরিয়ার জন্য মানুষের প্রাণ গেছে। তাই বাড়িতে যদি বাদুর প্রবেশ করে তাহলে নিঃসন্দেহে সেটি মানুষের জন্য অত্যন্ত আশঙ্কাজনক।