চোর আর শিক্ষক কখনও একসঙ্গে এক ফ্রেমে তর্ক করতে পারে না! অভিষেকের চ্যালেঞ্জের পাল্টা সুকান্ত

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ কেন্দ্রের বঞ্চনা নিয়ে ক্রমাগত সুর চড়াচ্ছেন তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। দিন কয়েক আগে বিজেপিকে খোলা চ্যালেঞ্জ জানান তিনি। একশো দিনের কাজ এবং আবাস যোজনার শ্বেতপত্র প্রকাশের পাশাপাশি মুখোমুখি তর্কে বসার আহ্বান জানান ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ। এবার এই নিয়ে পাল্টা দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার (Sukanta Majumdar)।

সোমবার ‘সুকান্ত গড়’ বালুরঘাটে সভা করেন অভিষেক। সেখান থেকে ফের কেন্দ্রের বঞ্চনা নিয়ে কথা বলেন তিনি। বিজেপির (BJP) রাজ্য সভাপতিকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে অভিষেক বলেন, ‘আপনার লোকসভা কেন্দ্রে এসে আমি আরেকবার চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে গেলাম। আমি সুকান্তবাবু বলব, আপনি জায়গা, সময়, সঞ্চালক ঠিক করুন। আপনি একদিকে থাকবেন, আরেকদিকে আমি’।

   

এখানেই অবশ্য থামেননি তৃণমূলের (TMC) সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক। গত তিন বছরে একশো দিনের কাজ এবং আবাস যোজনায় বিজেপি ১০ পয়সার হিসেব দিতে পারলে রাজনীতি ছেড়ে দেবেন বলেও দাবি করেন অভিষেক। এবার তাঁর এই খোলা চ্যালেঞ্জের পাল্টা দিলেন সুকান্ত মজুমদার।

আরও পড়ুনঃ শাহজাহানকে বাঁচাতে কী কী করেছিল রাজ্য পুলিশ? সন্দেশখালি কাণ্ডে বিরাট তথ্য ফাঁস করল CBI

মঙ্গলবার তৃণমূল ‘সেনাপতি’র চ্যালেঞ্জ নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের সম্মুখীন হন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। চোর এবং শিক্ষক কখনও একসঙ্গে তর্ক করতে পারে না, এহেন মন্তব্য করে সুকান্ত বলেন, ‘বসা তো যায়। তবে আমাদের সংস্কৃতিতে বলা হয়, যুক্তি এবং শ্রাস্তার্ধের লড়াই সর্বদা সমকক্ষ লোকের সঙ্গে হওয়া উচিত। চোর এবং শিক্ষক কখনও একসঙ্গে এক ফ্রেমে তর্ক করতে পারে না। এমনটা হলে শিক্ষকদের সম্মান নিয়ে টানাটানি পড়ে যাবে’।

abhishek banerjee sukanta majumdar

প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনের আবহে জেলায় জেলায় ঘুরে সভা করছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। গত বৃহস্পতিবার বিজেপিকে খোলা চ্যালেঞ্জ জানান তিনি। ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ একশো দিনের কাজ এবং আবাস যোজনার মতো প্রকল্পের শ্বেতপত্র প্রকাশের পাশাপাশি মুখোমুখি তর্কে বসার কথা বলেন। পদ্ম-শিবির সেই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করে প্রতিনিধি পাঠানোর কথা বললেও শেষ অবধি পাঠায়নি! এরপর গতকাল এই নিয়ে সুর চড়ান অভিষেক। এবার তৃণমূল সেকেন্ড ইন কমান্ডের সেই চ্যালেঞ্জকে প্রত্যাখ্যান করলেন সুকান্ত।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর