টাইমলাইনবিনোদন

বুড়ো বয়সে ভীমরতি! ১৭ বছর লিভ ইনে থেকে দু সন্তানের জন্ম দিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে বলিউড পরিচালক

বাংলাহান্ট ডেস্ক: কথায় বলে জন্ম, মৃত‍্যু, বিয়ে (Marriage) তিন বিধাতা নিয়ে। কারোর কম বয়সেই বিয়ে হয়ে যায়। আবার কেউ শেষ বয়সে বৃদ্ধাশ্রমে গিয়েও সাত পাক ঘোরেন। তবে এই বলিউড (Bollywood) পরিচালক যা করলেন তা এখন হাসাহাসির বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ১৭ বছর ধরে লিভ ইন সম্পর্কে থাকার পর অবশেষে সঙ্গিনীর গলায় মালা দিয়েছেন পরিচালক হনসল মেহতা (Hansal Mehta)।

দীর্ঘ ১৭ বছর ধরে প্রেমিকা সফিনা হুসেন (Safeena Hussain) এর সঙ্গে সহবাস সম্পর্কে ছিলেন হনসল। সহবাসে থাকাকালীনই জন্ম হয়েছে দুই সন্তানের। তারাও এখন নিজের নিজের জীবনে ব‍্যস্ত। এত বছর পর হঠাৎ করেই পরিচালকের বিয়ের সিদ্ধান্তে হতবাক নেটনাগরিকরা।


ক‍্যালিফোর্নিয়ার সান ফ্রান্সিসকোতে বিয়ের আসর বসেছিল হনসল ও সফিনার। না, ধুমধাম করে সাত পাক ঘুরে বিয়ে করেননি তা‌ঁরা। আইনি প্রয়োজনটুকু মিটিয়ে একে অপরের সঙ্গে বাকি জীবনটাও কাটানোর অঙ্গীকার নিয়েছেন।

বিয়ের একগুচ্ছ ছবি শেয়ার করে পরিচালক লিখেছেন, ‘১৭ বছর পর, দু সন্তানের জন্ম দিয়ে, ছেলেদের বড় হতে দেখে আর আমাদের নিজের নিজের স্বপ্ন পূরণ করার দৌড়ের পর আমরা ঠিক করলাম যে বিয়ে করব। বলা বাহুল‍্য, এটাও অপরিকল্পিত ছিল। তবে আমাদের অঙ্গীকার গুলো সত‍্যি ছিল আর এই ছোট্ট অনুষ্ঠানটা ছাড়া সেগুলো হয়তো বলাই হত না। শেষমেষ ভালবাসাই জিতে যায়। আর সেটাই হয়েছে।’

নব বিবাহিত জুটিকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাজকুমার রাও, মনোজ বাজপেয়ী, প্রতীক বব্বর, অনুভব সিনহা, হুমা কুরেশির মতো তারকারা। হনসল মেহতার বিয়ের ছবিগুলি ভাইরাল হয়েছে সোশ‍্যাল মিডিয়ায়।

গত বছর অক্টোবর মাসে প্রয়াত হন হনসল মেহতার শ্বশুর মশাই ইউসুফ হুসেন। পোস্টে তিনি লিখেছিলেন শ্বশুর মশাই না, ইউসুফ হুসেন তাঁর বাবার মতো ছিলেন। এখন তিনি বাস্তবিকই অনাথ হয়ে গেলেন। তাঁর উর্দুটা আর ঠিক হল না। ‘ইউসুফ সাব’কে হারিয়ে জীবনটা আর আগের মতো থাকল না, লিখেছিলেন হনসল মেহতা।

Related Articles

Back to top button