অতিথি সংখ্যা সর্বোচ্চ ১০০ আর খুব বেশি ১০ রকমের পদ! ‘বিয়ে’ নিয়ে নয়া আইনের পথে কেন্দ্র

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ভারতে বিয়ে বাড়ির চেহারাটা একদমই অন্য। বিয়ে মানে আমাদের চোখের সামনে উৎসবের ছবি ভেসে ওঠে। এলাহী আয়োজন ও অতিথি সমাগম ভারতীয় বিয়ের এক চেনা ছবি। এর ফলে প্রচুর পরিমাণ খরচ হয় দুই পরিবারের। কিন্তু অন্যদিক থেকে ভাবলে এই ধরনের অনুষ্ঠানে অপচয় হয় ব্যাপক পরিমাণ অর্থ। এছাড়াও নষ্ট হয় প্রচুর পরিমাণ খাবার।

বিয়ে বাড়ির এই এলাহী আয়োজনের বিরুদ্ধে লোকসভায় একটি বিল নিয়ে শুরু হল আলোচনা। লোকসভায় এই বিলটি ২০২০ সালে পাঞ্জাবের কংগ্রেস সাংসদ যশবীর সিং (Yashvir Singh) বেশ করেছিলেন।যশবীর সিং এর পেশ করা বিলে বলা হয়েছে, একটি সীমা বেঁধে দেওয়া হোক বিয়ে বাড়ির জন্য অতিরিক্ত খরচায়। সেই বিলে নতুন আইন পেশ করার প্রস্তাব রাখা হয়েছে।

   

এই বিলে দাবি জানানো হয়েছে, একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে সর্বাধিক ১০০ জন অতিথিকে নিমন্ত্রণ করা যাবে। অতিথিদের ভুরিভোজের জন্য সর্বাধিক দশটি পদ আয়োজন করা যাবে। এমনকি বিয়ের অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের উপহারের উপরও লাগাম টানার কথা বলা হয়েছে এই বিলে। পাঞ্জাবের খাদুর সাহিব লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ যশবীর সিং বলেছেন, ভারতের বিয়ের অনুষ্ঠানগুলিতে প্রচুর বাজে খরচ হয়।

এই বিল সেই বাজে খরচ রোখার জন্য। এই বিলে বলা হয়েছে বিয়ে বাড়িতে অতিরিক্ত খরচ গরিব-দুঃস্থদের কাজে লাগানো যেতে পারে। এমনকি কংগ্রেস সাংসদ এই বিল আনার পিছনে নিজের ব্যাখ্যাও পেশ করেন। কংগ্রেস সাংসদের কথায়, তিনি এমন অনেক গল্প শুনেছেন যেখানে মেয়ের বিয়ে দিতে গিয়ে পরিবার সর্বস্বান্ত হয়েছে।

img 1 1691397239663

বিয়ের অনুষ্ঠানের (Marriage Ceremony) খরচ জোগাড় করতে মোটা টাকা ঋণ নিতে হয়েছে ব্যাংক থেকে। কংগ্রেস সাংসদ ব্যাখ্যা দিয়ে জানিয়েছেন, এই বিল যদি পাশ হয় তাহলে কন্যা সন্তানদের আর বোঝা হিসেবে দেখবে না পরিবার। বিয়ের খরচ যদি কমে তাহলে কন্যা সন্তানদের ভবিষ্যতের বিষয় পরিবারের দুশ্চিন্তা থাকবে না।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর