রামনবমীর মিছিল করতে বাধা নেই! তবে মানতে হবে একগুচ্ছ শর্ত! জানিয়ে দিল হাই কোর্ট

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রামনবমীর মিছিল (Ram Navami Rally) নিয়ে গত বছর তেতে উঠেছিল রাজ্যের কয়েকটি জায়গা। এর মধ্যে অন্যতম হল শ্রীরামপুরের জিটি রোড। এই বছরও পুনরাবৃত্তি হতে পারে এই ঘটনার। সেই কারণে সংশ্লিষ্ট জায়গায় মিছিলের অনুমতি দেয়নি রাজ্য। তবে এবার রাজ্যের এই আপত্তি খারিজ করে দিল কলকাতা হাই কোর্ট (Calcutta High Court)।

পুলিশের বক্তব্য ছিল, বেশ কিছু স্পর্শকাতর জায়গা দিয়ে যাবে ওই মিছিল। তাই ৩৫,০০০ মানুষ নিয়ে মিছিল করা হলে অশান্তির একটা আশঙ্কা থাকতে পারে। যে কারণে আপত্তি করেছিল প্রশাসন। তবে সেই আপত্তি বাতিল করে দিল আদালত। একইসঙ্গে খারিজ করা হয়েছে রুট বদলের প্রস্তাবও। শ্রীরামপুরের (Serampore) জিটি রোডের ওপর দিয়ে ৭০০ মিটার এলাকা দিয়ে রামনবমীর মিছিল করার অনুমতি দিয়েছে হাই কোর্টের বিচারপতি জয় সেনগুপ্তের (Justice Jay Sengupta) বেঞ্চ।

মিছিলের অনুমতি দিলেও আদালতের তরফ থেকে একাধিক শর্ত দেওয়া হয়েছে। হাই কোর্ট জানিয়েছে, ১৩টি মিছিলে সর্বোচ্চ ২০ জন করে থাকতে পারবেন। আদালতের বক্তব্য, মিছিলের লোকসংখ্যা কমানোর নির্দেশ দেওয়া হলে রুট বদল করার প্রস্তাব মানা যাবে না। ৫০০০ মানুষের মিছিল সামলানোর দক্ষতা রাজ্য পুলিশের আছে বলে মত হাই কোর্টের। তবে প্রয়োজন পড়লে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সাহায্যও নেওয়া যেতে পারে।

আরও পড়ুনঃ জেলে যেতেও রাজি! ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ১ লক্ষ ২০ হাজার করে দেওয়ার ঘোষণা অভিষেকের!

গত বছর রামনবমীর মিছিল কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল শ্রীরামপুরের জিটি রোড সংলগ্ন এলাকা। ইট ছোঁড়ার অভিযোগও উঠেছিল। বর্তমানে এই ঘটনার তদন্ত করছে কেন্দ্রীয় এজেন্সি এনআইএ। এই বছর মিছিলের অনুমতি দিলে ফের অশান্তি হতে পারে, এই আশঙ্কা করে আপত্তি করেছিল রাজ্য। তবে সেই আপত্তি খারিজ করে দিল হাই কোর্ট। একইসঙ্গে মুর্শিদাবাদের বেলডাঙায় বাসন্তী পুজোর শোভাযাত্রা করতেও অসুবিধা নেই বলে জানিয়েছে আদালত।

ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘের তরফ থেকে আগামী ১৪ এপ্রিল বাসন্তী পুজো উপলক্ষ্যে শোভাযাত্রা বের করার আবেদন করা হয়েছিল। গণ্ডগোলের আশঙ্কায় এই আর্জি খারিজ করেছিল রাজ্য। এরপর হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয় ভারত সেবাশ্রম সঙ্ঘ। মিছিলের অনুমতি দিয়েছে জাস্টিস সেনগুপ্তের বেঞ্চ। গণ্ডগোলের আশঙ্কায় রোজনামচার কাজকর্ম বন্ধ রাখব? এই প্রশ্ন তুলে বিচারপতি বলেন, ‘গত ২০ বছর ধরে এই শোভাযাত্রা বেরোয়। তাদের বিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা হাঁটে। এই মিছিলে রাজ্যের আপত্তি কতখানি যুক্তিসঙ্গত?’

calcutta high court fake teacher recruitment

মিছিলে অনুমতি দিলেও হাই কোর্টের তরফ থেকে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা অবশ্য কমানো হয়েছে। ৫০০০ নয়, বরং ৩০০০ মানুষ এই মিছিলে অংশগ্রহণ করতে পারবে বলে জানানো হয়েছে। একইসঙ্গে জাস্টিস সেনগুপ্তের নির্দেশ, দরকার হলে রাজ্যের গোয়েন্দা সংস্থা এই বিষয়ে আরও তথ্য সংগ্রহ করুক। প্রয়োজন পড়লে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সাহায্যও নিতে পারবে।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর