আদালত ছেড়ে রাজনীতির দুনিয়ায়! চাকরিপ্রার্থীদের নিয়ে বড় বয়ান জাস্টিস গঙ্গোপাধ্যায়ের

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রবিবাসরীয় দুপুরে আচমকাই শোরগোল! সৌজন্যে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের (Justice Abhijit Ganguly) একটি সাক্ষাৎকার। মঙ্গলবার বিচারপতির পদ থেকে ইস্তফা দিতে চলেছেন, জানিয়ে দিলেন তিনি। আদালতের কক্ষের পর এবার রাজনীতির ময়দান! কার্যত এই বার্তাই দিয়েছেন। কিন্তু তাঁর থেকে সুবিচার পাওয়ার আশায় যে মানুষরা থাকেন, সেই চাকরিপ্রার্থীদের এবার কী হবে? ইস্তফার (Resignation) সিদ্ধান্তের পর তাঁদের নিয়েও কথা বলেন জাস্টিস গঙ্গোপাধ্যায়।

   

রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় উল্লেখযোগ্য কিছু রায় দিয়েছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় (Abhijit Ganguly)। যে কারণে বাংলার সাধারণ মানুষের মনে যেমন আলাদা করে স্থান করে নিয়েছিলেন, তেমনই রাজ্যের শাসকদলের (TMC) সমালোচনার মুখেও পড়েছিলেন তিনি। চাকরিপ্রার্থীদের পাশাপাশি এমন প্রচুর মানুষ বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়য়ের এজলাসে আসতেন, যাঁদের মামলা হয়তো তাঁর বিচার্যই ছিল না। জাস্টিস গঙ্গোপাধ্যায় (Justice Ganguly) সুবিচার করবেন, অনেকের মনেই থাকতো এই আশা।

সংবাদমাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, একজন বিচারপতি হিসেবে সাধারণ মানুষকে সুবিচার দেওয়ার জন্য তাঁর যা করা উচিত তিনি সেটাই করেছেন। তাঁর কথায়, অসহায় মানুষগুলোকে আমি লিগাল এডে যাওয়ার পরামর্শ দিতাম। কোনও আইনজীবীকে তাঁদের মামলা দেখার কথা বলতাম।

বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, অনেক সময় লেখাপড়া জানা মানুষও আইনি জটিলতায় পড়লে ভীষণ অসহায় বোধ করেন। নিজের সাধ্য মতো তাঁদের সাহায্য করার চেষ্টা করেছেন বলে জানান তিনি। আগামী মঙ্গলবার বিচারপতি পদ থেকে ইস্তফা দেবেন। তবে তিনি না থাকলেও আদালতের (Calcutta High Court) অন্যান্য বিচারপতিদের থেকে সাধারণ মানুষ সহায়তা পাবেন বলে আশা তাঁর।

justice ganguly s

আরও পড়ুনঃ মোদীর হাত ধরে BJP-তে যোগ, লোকসভায় অভিষেকের বিরুদ্ধে প্রার্থী হচ্ছেন জাস্টিস গঙ্গোপাধ্যায়?

রবিবার সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় জাস্টিস গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, বৃহত্তর ক্ষেত্রে যোগ দিতে চলেছেন। কোন রাজনৈতিক দলে যোগ দেবেন সেটা এখনই খোলসা করেননি। তবে বাংলার শাসক দল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা ইতিহাসে মৌর্য সাম্রাজ্য দেখেছি। এখন দেখছি চৌর্য সাম্রাজ্য’। কোন দলে যোগ দেবেন সেটা না জানালেও তৃণমূল কংগ্রেসে যে যোগ দিচ্ছেন না সেটা স্পষ্ট করে দিয়েছেন বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়। তবে রাজনৈতিক মহলের অনুমান, কোনও একটি দলের সঙ্গে জাস্টিস গঙ্গোপাধ্যায়ের কথাবার্তা হয়ে গিয়েছে। শীঘ্রই সেই বিষয়ে ঘোষণা করা হবে।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর