ডেডলাইন ৭ ডিসেম্বর! প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ মামলায় বিরাট নির্দেশ বিচারপতি সিনহার

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ মামলায় (Primary Recruitment Case) ফের কড়াকড়ি বিচারপতি অমৃতা সিনহার (Justice Amrita Sinha)। ২০১৬ সালের প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্যানেল কোথায়? তালিকার বাইরে কত নিয়োগ? প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদকে হলফনামা দিয়ে জানাতে বলল কলকাতা হাইকোর্ট (Calcutta High Court)।

হলফনামা দেওয়ার নির্দেশ

   

বৃহস্পতিবার বিচারপতি অমৃতা সিনহার সিঙ্গেল বেঞ্চে মামলা উঠলে তিনি বলেন, এর আগে যে বোর্ড ৯৪ জনের নিয়োগ বেআইনি বলে জানিয়েছিল, তাদের কি আসনের চেয়ে অতিরিক্ত হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল? এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর চেয়ে পর্ষদকে হলফনামা দেওয়ার নির্দেশ।

আগামী ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদকে আদালতে হলফনামা জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে বিচারপতি সিনহা। এদিন এদিন মূল মামলার চাকরিপ্রার্থীদের পক্ষের আইনজীবী জানান, পর্ষদ কোনও প্যানেল প্রকাশ করেনি। নিয়োগ সংখ্যার থেকে অনেকটা বেশি মোট ৯৯৪ জনের নিয়োগ হয়েছিল। এখন ৯৪ জনের নাম বাদ গেলে, আর কোনও শূন্যপদ থাকে না বলে আদালতে জানান তিনি। উল্টে পর্ষদের দাবি প্যানেল প্রকাশ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: আদালতের এক নির্দেশেই ঘুরে গেল খেলা! মাথায় বাজ ‘অসুস্থ’ জ্যোতিপ্ৰিয়র, হাসছে ED

ক্ষোভ প্রকাশ বিচারপতির

এদিন মামলায় বিচারপতির পর্যবেক্ষণ, “অক্টোবর মাসে হলফনামা জমা দেওয়ার কথা। পর্ষদ নভেম্বরের শেষে এসেও সময় চাইছে? অনেক বঞ্চিত বেকার যুবক-যুবতীরা অপেক্ষায় রয়েছেন। এভাবে তাদের সময় নষ্ট হচ্ছে। যারা অপেক্ষা করে রয়েছেন, তারা বেকার। রোজ একদিন করে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে তাদের জীবন থেকে। জীবনের ১ দিন নষ্ট হচ্ছে তাদের।”

high court

পাশাপাশি একাধিক মামলায় বিস্তর অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে সেই প্রসঙ্গও তোলেন বিচারপতি। যাদের বেআইনিভাবে নিয়োগ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠছে, তাদের বিরুদ্ধে পর্ষদ কি ব্যবস্থা করছে তাও জানতে চান বিচারপতি সিনহা। আগামী ১২ ডিসেম্বর এই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয়েছে।