উধাও শাহজাহানের জোড়া মোবাইল! দিন রাত এক করে খুঁজছে CBI, কী এমন ছিল তাতে?

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ হদিস নেই সন্দেশখালির ‘বেতাজ বাদশা’র দুটি মোবাইলের? কোথায় রয়েছে সেগুলো! বহু টানাপোড়েনের পর আদালতের নির্দেশে সন্দেশখালি কাণ্ডের মূল অভিযুক্ত শেখ শাহজাহানকে (Sheikh Shahjahan) নিজেদের জিম্মায় পেয়েছে সিবিআই (CBI)। চলছে ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ। এই পরিস্থিতিতে তথ্য-প্রমাণ খুঁজে পেতে তদন্তকারীদের ওই দুটি ফোন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তবে রীতিমতো উধাও হয়ে গিয়েছে শেখ শাহজাহানের দুটি ফোন।

   

সূত্রের খবর, ১০ দিনের হেফাজতের পরেও শেখ শাজাহানের ২ টি মোবাইল এখনও অধরা। এখনও মেলেনি সেই দুটি ফোন। তাহলে কোথায় হাওয়া হয়ে গেল দু ২টি ফোন? এবার সেসবের খোঁজ পেতেই শেখ শাহজাহানকে চেপে ধরবে সিবিআই। সূত্রের খবর, এবার শাহজাহানকে তার নিখোঁজ ফোন নিয়ে জেরা করবে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

শাহজাহানের দুটি ফোন হাতে পেতে মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে সিবিআই। শাহজাহান গ্রেফতারির এত দিন পর আদেও সেই মোবাইলগুলি আছে না নষ্ট করা হয়েছে সেই নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। বৃহস্পতিবারের পর শুক্রবার সকালে ফের সন্দেশখালিতে পৌঁছে যায় সিবিআই। আকুঞ্জিপাড়ায় শাহজাহানের বাড়িতে হানা দেয় সিবিআই আধিকারিকদের একটি দল। এদিনও সেই বাড়িতে যায় টিম সিবিআই।

শাহজাহানের নামের মার্কেটেও যায় সিবিআই। সেখানে থ্রি – ডি স্ক্যানার ও ইমেজ করে গোটা বিষয়ে একটি প্রাথমিক ধারণা মেলে। গত ৫ই জানুয়ারি শেখ শাহজাহানের অনুগামীদের হাতে আক্রান্ত হওয়া ইডির ২ জন আধিকারিকও এদিন সন্দেশখালি যায়। গত ৫ জানুয়ারি কী করে ইডি-র ওপর হামলা হল, কারা হামলা চালল? কিভাবে, কে অত লোক জড়ো করল? এসব বিষয়ই সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে সন্দেশখালিতে সিবিআই এর গোয়েন্দারা।

তদন্তকারী সংস্থা সূত্রে খবর, শেখ শাহজাহানের কল ডিটেলস ঘেঁটে একের পর এক বিস্ফোরক তথ্য তাদের সামনে এসেছে। ইডি ও কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের ওপর হামলার ঘটনার সময়, শাহজাহানের একটি ফোন থেকে ৩ টি কল করা হয়। আরেকটি ফোন থেকে প্রায় ১৮ টি ফোন কল করা হয়। ঘটনার দিনই সকাল সাড়ে আটটা নাগাদ শেখ শাহজাহানকে ফোন করেন সন্দেশখালির তৃণমূল বিধায়ক সুকুমার মাহাতো। দেড় মিনিট মতো কথা হয়।

shahjahan pn

আরও পড়ুন: DA অতীত! এবার সামনে আরও বড় চমক? কী অপেক্ষা করছে সরকারি কর্মীদের জন্য?

যদিও এই বিষয়ে বিধায়কের দাবি, ‘আমি নিজেই ওকে ফোন করেছিলাম। ফোন করে বলেছিলাম, ভাই কোনও রকম মারপিট-ভাঙচুর, ইডিকে মারধর যাতে না হয়, দলের থেকে আমাকে বলছে। ও ও শুধু বলেছে, আমি তো জানি না, আমি ছিলাম না, এইটুকু বলেছে।’ সিবিআই সূত্রে আরও খবর, পঞ্চায়েতের নেতা ও স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের নম্বরও শাহজাহানের কল লিস্ট থেকে পাওয়া গিয়েছে।

সিবিআই সূত্রে খবর, ঘটনার দিন সকাল ৭.২০ তে এক ইডি আধিকারিক ফোন করেছিলেন শেখ শাজাহানকে। তারপর থেকে দুপুর ১.৩০ টা পর্যন্ত একাধিক স্থানীয় নেতা ও অনুগামীদের বহু বার ফোন করেন শাহজাহান। জানা যাচ্ছে এবার তৃণমূল বিধায়ক সুকুমার মাহাতো সহ যাদের সাথে শাহজাহানের কথা হয়েছিল তাদেরকেও তলব করে জিজ্ঞাসাবাদ করবে সিবিআই।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর