কপাল খারাপ, তিহাড়ে ঠিকানা বদলে গেল অনুব্রতর! হঠাৎ হল কী কেষ্টর সঙ্গে? উদ্বেগে সবাই

বাংলা হান্ট ডেস্ক : কপাল খুলল না অনুব্রত মন্ডলের (Anubrata Mandal)। গরু পাচার মামলায় ধৃতদের আজ দিল্লির রাউস অ্যাভিনিউ কোর্টে তোলা হয়। বিশেষ সিবিআই (Central Bureau of Investigation) আদালতের বিচারক রঘুবীর সিংহ গরু পাচারে (Cow Smuggling Case) ধৃত সকলের জেল হেফাজতের মেয়াদ ২১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

অনুব্রত অসুস্থ : সুকন্যা, অনুব্রতর প্রাক্তন দেহরক্ষী সেহগল হোসেন ও বিএসএফ আধিকারিক সতীশ কুমারকে আদালতে নিয়ে আসা হলেও তিহাড় জেলের তরফে অনুব্রতকে ভিডিয়ো কনফারেন্সে আদালতে হাজির করানোর অনুমতি চাওয়া হয়। তখনই জানা যায়, তিনি অসুস্থ। একই জেলে আটক থাকলেও সুকন্যার তা জানা ছিল না। বাবার শরীর খারাপ শুনে আদালতে কেঁদে ফেলেন সুকন্যা। সেহগল হোসেনের কাছেও অনুব্রত সম্পর্কে খোঁজখবর নিতে শুরু করেন।

   

anubrata mondal, saigal hossain , sukanya mondal

স্থানান্তর করা হল অনুব্রতকে : অনুব্রতের আইনজীবী সম্পৃক্তা ঘোষাল জানান, অনুব্রত মণ্ডলকে একদিনের জন্য জেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। এখন তাঁকে সাত নম্বর ব্যারাক থেকে সরিয়ে তিন নম্বর ব্যারাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে তার কারণ জানা যায়নি। কোনও খবরও দেওয়া হয়নি। অন্য অভিযুক্তরা সাত নম্বর ব্যারাকেই রয়েছেন। সেহগল তাঁকে জানিয়েছেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের নির্দেশে না কি অনুব্রতে সরানো হয়েছে!

কবে ছাড়া পেতে পারেন কেষ্ট? অনুব্রতের তরফে বিচারক রঘুবীর সিংহের এজলাস থেকে মামলা অন্যত্র সরানোর আর্জি জানানো হয়েছিল। ২৪ অগস্ট তার রায় জানা হবে। অনুব্রতের জামিনের আর্জির মামলাও দিল্লি হাই কোর্টে ঝুলে রয়েছে। অনুব্রতের আইনজীবীরা আশা করছেন, ২১ সেপ্টেম্বরের আগেই অনুব্রত জামিনে তিহাড় জেল থেকে ছাড়া পেতে পারেন।

আরও পড়ুন : জঙ্গলরাজ! বাড়িতে ঢুকে গুলি করে খুন, নৃশংস ভাবে হত্যা সাংবাদিককে, প্রশ্নের মুখে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা 

কেঁদে ভাসান সুকন্যা : এর আগে মামলার টাকা (Cow Smuggling Case) জোগাড় করতে পারছি না বলে এজলাসে আক্ষেপ প্রকাশ করতে দেখা গিয়েছিল অনুব্রত কন্যাকে। এদিন জামিন নাকচ হওয়ার পর রীতিমতো কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি। প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ান অনুযায়ী, চোখে মুখে দৃশ্যতই হতাশা দেখা গিয়েছে সুকন্যার।

Avatar
Sudipto

সম্পর্কিত খবর