টাইমলাইনভারতরাজনীতি

ত্রিপুরায় মুখ্যমন্ত্রী, কীভাবে সিঙাড়া বানাতে হয় দেখালেন মমতা! বানালেন পানও

বাংলাহান্ট ডেস্ক : সামনে ত্রিপুরার (Tripura) বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে দুই দিনের সফরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পৌঁছলেন ত্রিপুরায়। এদিন ত্রিপুরেশ্বরী মন্দিরে মুখ্যমন্ত্রী (Chief minister) পুজো দেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে সাথে নিয়ে। মঙ্গলবার তৃণমূলের একটি রোড শো রয়েছে ত্রিপুরায়। এর আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় জানান ত্রিপুরায় শুরু হতে চলেছে বাংলা মডেল।

সদ্য প্রকাশিত তৃণমূলের ইস্তেহারে রয়েছে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার, সবুজ সাথী, চাকরির প্রতিশ্রুতিও। এদিন বিকেলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখা যায় হালকা মেজাজে। তিনি হঠাৎ ঢুকে পড়েন রাস্তার ধারের এক দোকানে। প্রথমে তিনি যান একটি কচুরি-সিঙাড়া তৈরীর দোকানে। প্রথমে তিনি সিঙাড়া তৈরির তদারকি করেন। এরপর তিনি বুঝিয়ে দেন কিভাবে ময়দা বেলে তা সঠিক আকারে কেটে আলুর পুর ভরতে হয়।

এরপর তিনি ঢুঁ মারেন পাশের একটি পানের দোকানে। সেখানে গিয়ে বলেন, “ত্রিপুরার মানুষ পান খেতে খুব ভালোবাসেন আমি জানি।” এরপর তিনি নিজের হাতে একটি পানও সাজেন। এর আগেও মুখ্যমন্ত্রী দিঘাতে গিয়ে এইভাবে মিশে গিয়েছিলেন সাধারণ মানুষের সাথে। চা তৈরি করতে তিনি ঢুকে যান দোকানের ভিতর। হাতা নিয়ে নেন দোকানদারের কাছ থেকে। তিনি জানতে চান চায়ে কেন দুধ কম।

আবার কিছুদিন আগে প্রশাসনিক বৈঠক করতে গিয়ে শান্তিনিকেতনের একটি চায়ের দোকানে ঢুকে যান মুখ্যমন্ত্রী। এরপর তিনি সেখানে নিজের হাতে তৈরি করেন চা। এরপর সেই চা তিনি তুলে দেন দোকানের কর্ণধার সরমা মাড্ডি এবং তাঁর মেয়ে পায়েলের হাতে। এরপর মুখ্যমন্ত্রীর তৈরি চা সবাইকে পরিবেশন করেন ফিরহাদ হাকিম।

Adblock Detected

Please consider supporting us by disabling your ad blocker