‘রাজনৈতিক হাতিয়ার যেন না হয়ে যায়’, G20-তে ভারতের চুক্তি নিয়ে চিন্তায় চীন, করল কাতর আবেদন

বাংলা হান্ট ডেস্ক: দিল্লিতে দু’দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত জি-২০ সম্মেলনে (G-20 Summit) ভারত (India), মধ্যপ্রাচ্য আমেরিকা এবং ইউরোপের মধ্যে একটি করিডোর তৈরির জন্য চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। আর এবার সেই নিয়ে মুখ খুলল জিনপিং-এর সরকার। এই করিডোরকে স্বাগত জানাল চীন (China)। তবে এরই পাশাপাশি তাদের বক্তব্য, এটা যাতে আন্তর্জাতিক রাজনীতির অস্ত্রে পরিণত না হয়।

চীনের বিদেশমন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছে, ‘উন্নয়নশীল দেশগুলির মধ্যে সংযোগ স্থাপনকে আমরা স্বাগত জানাই। এটি উন্মুক্ত, অন্তর্ভুক্তিমূলক এবং সহযোগিতামূলক হওয়া উচিত।‌ কিন্তু এটাকে কখনই ভৌগোলিক বা আন্তর্জাতিক রাজনীতির অস্ত্র বানানো উচিত নয়।’

   

উল্লেখ্য, জি-২০ সামিটেই ইকোনমিক করিডোরের ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। একদিকে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন (Joe Biden), অন্যদিকে সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স এবং প্রধানমন্ত্রী মহম্মদ বিন সলমন আল সাউদকে পাশে বসিয়ে তিনি বলেছিলেন, ‘আমরা একটা গুরুত্বপূর্ণ এবং ঐতিহাসিক অংশীদারিত্বে একমত হয়েছি। আগামী সময়ে এই করিডোরটি ভারত, পশ্চিম এশিয়া এবং ইউরোপের মধ্যে অর্থনৈতিক সহযোগিতার একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হবে।’

এই করিডোরের মাধ্যমে ইতালি, জার্মানি, আমেরিকা, ফ্রান্স ও ইউরোপীয় ইউনিয়নকে যুক্ত করার কথা বলা হয়েছে। অন্যদিকে, ইতালির তরফে চীনকে বেল্ট এবং রোড ইনিশিয়েটিভ বা BRI-থেকে বাদ দেওয়ার দাবি তোলা হয়েছে। যা চীনের কাছে বড় ধাক্কার বলেই মনে করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, মধ্যপ্রাচ্যের মাধ্যমে ভারত ও ইউরোপের মধ্যে বাণিজ্যিক সম্পর্ক স্থাপনের উদ্যোগেই এই রেল-পোর্ট করিডোর তৈরি করা হয়েছে। এই করিডোরে রেলপথ এবং জলপথ উভয়ই থাকবে। এই নিয়ে ইতিমধ্যেই পাকিস্তান তাদের সরকারের অকর্মণ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। এবার চীনও রীতিমতো চাপে পড়ল।

Avatar
Monojit

সম্পর্কিত খবর