দু পা এগোলেই ‘মিনি সুইজারল্যান্ড’! দার্জিলিং তো অনেক হল, এবার টুক করে চলে যান এই পাহাড়ি গ্রামে

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : এ যেন স্বর্গ। প্রথম দেখাতে এমনই মনে হতে পারে এই জায়গাকে। ছবির মতো সুন্দর পাহাড় ঘিরে রয়েছে গোটা এলাকা। এই পাহাড়ি গ্রামের সৌন্দর্য লিখে বর্ণনা করা অসম্ভব। একে মিনি সুইজারল্যান্ডও বলতে পারেন। অপূর্ব প্রকৃতির টানে বহু পর্যটক ঘুরতে যান সুইজারল্যান্ডে। কিন্তু ঘরের কাছেই এমন এক জায়গা আছে যা আপনাকে এনে দেবে সুইজারল্যান্ড ভ্রমণের অনুভূতি।

আজ আমরা কথা বলছি উত্তরাখণ্ডের এক ছোট গ্রাম চোপতাকে (Chopta) নিয়ে। উত্তরাখণ্ড শুনলেই আমাদের চোখের সামনে ভেসে ওঠে হরিদ্বার কিংবা চারধামের মতো জায়গা। কিন্তু ভারতের উত্তরের এই রাজ্যে রয়েছে অপূর্ব প্রকৃতির শোভা। চোপতা সেরকমই একটি জায়গা। উত্তরাখণ্ডে বহু পর্যটক ঘুরতে গেলেও তাদের অধিকাংশই যান তীর্থ স্থানগুলিতে। তাই চোপতার মতো ছোট পাহাড়ি গ্রামগুলিতে খুব একটা পর্যটকদের ভিড় হয় না।

চোপতা গাড়োয়াল হিমালয়ের অংশ। বছরের যে কোনও সময় এখানে ঘুরতে যাওয়া যায়। তবে অক্টোবর মাস থেকে এই গ্রামের সৌন্দর্য বহুগুণ বেড়ে যায়। কেদারনাথ, মদমহেশ্বর, রুদ্রনাথ, কল্পেশ্বর, তুঙ্গনাথ এর মধ্যবর্তী একটি উপত্যকা অঞ্চল এই চোপতা। ভারতের সবথেকে উচ্চস্থানে অবস্থিত শিব মন্দির রয়েছে তুঙ্গনাথে। যারা তুঙ্গনাথ যান, তারা একদিনের জন্য হল্ট করেন চোপতাতে।

hill5 1690306599

চোপতা থেকে ত্রিশূল-নন্দাদেবী ও চৌখাম্বা পিক একসাথে দেখা যায়। এই উপত্যকাটি অবস্থিত ২৬৮০ মিটার উচ্চতায়। এখান থেকে হিমালয়ের শৃঙ্গগুলিকে কাঁচ কাটা হীরের মতো উজ্জ্বল দেখায়। এছাড়াও দেবদারু-রডোডেনড্রন, ম্যাপেলের জঙ্গল রয়েছে চোপতার চারপাশে। উখি মঠ থেকে গাড়ি করে খুব সহজেই পৌঁছে যেতে পারেন চোপতা। অন্যদিকে হরিদ্বার থেকেও সোজা আসা যায় এখানে।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর