বেআইনিভাবে শিক্ষক নিয়োগে নয়া মোড়! CID’র জালে এবার প্রধান শিক্ষক, প্রাক্তন DI

বাংলাহান্ট ডেস্ক : শিক্ষক নিয়োগের দুর্নীতির একে একে রহস্যভেদ হচ্ছে। এবার আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে এলেন প্রাক্তন ডিআই এবং খামারচক হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক। বুধবার সিআইডি তমলুকের খামারচক হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক অশোক কুমার হাটুয়া এবং পূর্ব মেদিনীপুরের প্রাক্তন ডিআই (মাধ্যমিক) চাপেশ্বর সর্দারকে গ্রেফতার করে।

   

জানা গিয়েছে, হাইকোর্টের নির্দেশে এফআইআর করা হয়েছিল তমলুক থানায়। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার বর্তমান ডিআই শুভাশিস মিত্র সেই এফআইআরটি করেছিলেন। ২০১৭ সালে নিজের স্কুলে নিয়ম বহির্ভূতভাবে নিজের ভাইপো শুভেন্দু হাঁটুয়াকে নিয়োগ করার জন্যেই উঠে আসে প্রধান শিক্ষক অশোক কুমার হাঁটুয়ার নাম। তার পরিপ্রেক্ষিতেই অশোক কুমার হাঁটুয়ার সাথে তৎকালীন ডিআইকেও ধরা হয়।

আরোও পড়ুন: ফ্রি ফ্রি ফ্রি! এই ৩ টি পরিষেবার জন্য দিতে হবে না এক পয়সাও, ধামাকা অফার আনল Jio

এই ঘটনায় প্রধান শিক্ষক অশোক কুমার হাটুয়ার বন্ধু তপন শাসমল বলেন, শুভেন্দু হাটুয়া অশোকবাবুর আত্মীয় নন। একই পদবি হওয়ায় বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে। তবে তাঁর বক্তব্য, “এই নিয়োগ নিয়ে একটা অভিযোগ উঠেছিল। পরে মামলাটি এসএসসির সঙ্গে জড়িয়ে দেওয়া হয়। আমাদের তো এ বিষয়ে কিছু বলার নেই। আইন যেভাবে চলছে, সেভাবে চলবে। আইনের ওপর কেউ নয়।”

whatsapp image 2024 01 11 at 41305 pm

তিনি জানান, ২০১৪ সালে দুজন নিয়োগ হয়েছেন। ডিআই ২০১৮ সালে ‘অ্যাপ্রুভাল’ দিয়েছিলেন। সেই মতো দুই শিক্ষক কাজও শুরু করে দেন। পরবর্তী ডিআই আগেই ‘অ্যাপ্রুভাল’ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।বৃহস্পতিবার ধৃত দুজনকে তমলুক জেলা আদালতে তোলা হয়। সিআইডি তরফ থেকে ধৃতদের ১৪ দিনের জন্য নিজেদের হেফাজতের নেওয়ার আবেদন জানানো হয়েছে।