‘উনি আমার কথা মন দিয়ে শুনেছেন…’, কোন আশ্বাস দিয়েছেন মোদী? বৈঠক শেষে জানালেন মমতা

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বুধে ছিল বহু প্রতিক্ষিত মোদী-মমতা বৈঠক। কুড়ি মিনিটের বৈঠক হয় বাংলার মুখ্যমন্ত্রী ও দেশের প্রধানমন্ত্রীর। নিট ফলাফল কি হল সেই বৈঠকের? সাক্ষাৎ শেষে এই বিষয়ে নিজেই জানিয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। প্রসঙ্গত, বাংলার পাওনা, বকেয়া ইস্যুতে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত সর্বদাই দেখা যায়। একাধিক দিক থেকে বঞ্চিত বাংলা, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার টাকা দেওয়া হচ্ছে না, বন্ধ রয়েছে একশো দিনের কাজের টাকা। স্বাস্থ্য খাতেও টাকা দিচ্ছেনা কেন্দ্র। এই রকমই বহু বিষয় নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দরবারে গিয়েছিলেন মমতা।

   

২০ মিনিটের স্বল্প দৈর্ঘ্যর বৈঠকে ঠিক কি আলোচনা হল? কেন্দ্র কি এবার বাংলার টাকা ছাড়বে? এদিন প্রধানমন্ত্রীর সাথে বৈঠক শেষে মমতা বলেন, ‘‘কেন্দ্র এবং রাজ্যের সংশ্লিষ্ট কর্তাদের নিয়ে একটি যৌথ কমিটি গড়ার কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। তারা গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখবে। তার পরে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’’

মমতা আরও বলেন, ‘‘আমি ওনাকে বলেছি, যদি কোনও ভুল হয়ে থাকে তবে আমাদের বলুন। আগেও বহুবার কেন্দ্রীয় দল এসেছে, আমরা ব্যাখ্যা দিয়েছি। আবার দেব। কিন্তু এভাবে গরিবদের টাকা আটকে রাখবেন না।’’ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মমতা বলেন, ‘‘কেন্দ্রের ১৫৭টি টিম গিয়েছিল বাংলায়। যা জানতে চেয়েছে জানিয়েছি। তার পরও টাকা পাব না কেন? আমি সেই প্রশ্ন করেছি প্রধানমন্ত্রীকে’’।

আরও পড়ুন: কেঁচো খুঁড়তে কেউটে! অরণ্যভবন তল্লাশি করতেই জ্যোতিপ্ৰিয়র বিপুল সম্পত্তির হদিস পেল ED

mamata modi d

মুখ্যমন্ত্রী বলেন,’ প্রধানমন্ত্রী সব কথা শুনেছেন। তিনি বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন।’ বৈঠক শেষে মমতা আরও বলেন, ‘আমাদের ১০০ দিনের কাজের টাকা বন্ধ করে দিয়েছে কেন্দ্র। গরিব মানুষ কাজ করেও এখনো টাকা পাননি। সংবিধানকে সম্মান দিয়ে এই টাকা কেন্দ্রের মিটিয়ে দেওয়া উচিত।

হিসেব বুঝিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে ১০০ দিনের টাকা-সহ অন্যান্য প্রকল্পের পাওনা টাকার হিসাব দিয়েছি। মোট ১ লক্ষ ১৬ হাজার কোটি টাকা প্রাপ্য রয়েছে বাংলার। প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছি। উনি ভালো মত বিষয়টি শুনেছেন।