“ইন্ডিয়ার নাম চেঞ্জ করে দিচ্ছে, ‘ভারত’ তো বলিই, হঠাৎ কী হল যে ইন্ডিয়া বাদ?” প্রশ্নে সরব মমতা

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ মঙ্গলবার শিক্ষক দিবস উপলক্ষে কলকাতার ধন ধান্য প্রেক্ষাগৃহে শিক্ষক দিবসের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। সেখানে দাঁড়িয়ে তৃণমূল সুপ্রিমোর অভিযোগ, দেশের নাম বদল করে দেওয়ার প্রচেষ্টা চলছে।

এদিনের অনুষ্ঠান থেকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আমি শুনলাম ইন্ডিয়া নাম বদলে দেওয়া হচ্ছে। আরে ভারত তো আমরা বলিই। এতে নতুন কী আছে!” প্রসঙ্গত, জি২০ সম্মেলন উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি (President) দ্রৌপদী মুর্মুর দেওয়া রাষ্ট্রনেতাদের নৈশভোজের যে আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হয়েছে সেখানে ‘দ্য প্রেসিডেন্ট অফ ইন্ডিয়া’-র বদলে ‘দ্য প্রেসিডেন্ট অফ ভারত’। এই ইস্যু নিয়েই এদিন সরব মমতা।

এই বিষয়ে মমতা বলেন, “শুনলাম ইন্ডিয়ার নাম চেঞ্জ করে দিচ্ছে। রাষ্ট্রপতি জি-২০ সম্মেলনের (G-20) জন্য পাঠানো নৈশভোজের আমন্ত্রণপত্রে ইন্ডিয়ার পরিবর্তে ভারত লেখা হয়েছে। হঠাৎ করে কী হল যে দেশের নাম বদলে দেওয়া হবে!”

আরও পড়ুন: ‘যে রাজভবনে বসে রয়েছেন, তার টাকাটাও আমরা দিই!’, রাজ্যপালকে ফালাফালা আক্রমণ মমতার

মমতার কথায়, “আমরা ইংরেজিতে বলি ইন্ডিয়া আর হিন্দিতে বলি ‘ভারত কা সংবিধান’। আমরা বলি ভারত আমার ভারতবর্ষ, স্বদেশ আমার স্বপ্ন গো। কিন্তু তা বলে ইন্ডিয়া নাম ত্যাগ করতে হবে? ওই নামে তো সারা বিশ্ব চেনে? হঠাৎ এমন কী হল?”

এখানেই শেষ নয়! মোদীকে তোপ দেগে মমতা আরও বলেন, “আজকে দেশের নামটাও চেঞ্জ হয়ে যাবে। কবে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নাম বদলে দেবে। যা ইচ্ছা বদলে দিচ্ছে। দেশের ঐতিহাসিক সৌধগুলির নামও বদলে দিচ্ছে। এরা ইতিহাস বিকৃত করছে।”

mamata

আরও পড়ুন: বাতিলের পথে আরও ১০ হাজার চাকরি? বিপাকে ‘এই’ সমস্ত শিক্ষকেরা

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে জাতীয় স্তরে বিরোধী জোটের নাম ‘ইন্ডিয়া’ (India Alliance) হওয়ার পর থেকে রাজনীতিতে এই নাম বিতর্ক শুরু হয়েছে। এবার রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর দেওয়া আমন্ত্রণপত্রে ‘দ্য প্রেসিডেন্ট অফ ভারত’ লিখতেই বিতর্ক আরও তুঙ্গে।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর