যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাজ্যপালকে রাস্টিকেট করল ছাত্র সংগঠন

বাংলা হান্ট ডেস্ক : টানা এক সপ্হা ধরে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে উত্তপ্ত হয়েছে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। যেভাবে রাজ্যপালকে ঘেরাও করে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে তাঁর অবস্থান নিয়ে প্রশ্ন তুলে বিক্ষোভ দেখানো হয়েছে তার জেরে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিস্থিতি কার্যত ধুন্ধুমার হয়ে উঠেছিল। আর এরইমধ্যে এবার খোলা চিঠি পাঠিয়ে রাজ্যপাল তথা বিশ্ববিদল্যালয়ের আচার্যকে রাস্টিকেট করল যাদবপুরের ছাত্র সংগঠন।

এই ঘটনা একপ্রকার আগুণে ঘি ঢালার মতো পরিস্থিতি তৈরি করেছে। জানা গিয়েছে বৃহস্পতিবার মেরুদন্ডহীন বলে রাজ্যপালকে একটি খোলা চিঠি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংগঠন। তারপর লেখা হয়েছে, “এতদ্বারা আপনাকে (জগদীপ ধনখর) জানানো হচ্ছে যে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য পদ থেকে আপনাকে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংগঠন আপনাকে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যপালের পদ  থেকে বঞ্চিত করারও সিদ্ধান্ত নিয়েছে।”

   

যদিও এখানেই শেষ নেই। রাজ্যপালের জ্ঞাণ ও তর্ক করার ক্ষমতা নিয়েও কিন্তু প্রশ্ন উঠেছে। পাশাপাশি, তাঁর সামগ্রিক চরিত্র নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। উল্লেখ্য, সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্ট বৈঠকে যোগ দিতে এসে পড়ুয়াদের বিক্ষোভের মুখে পড়েন রাজ্যপাল। তাঁর গাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া থেকে শুরু করে শিক্ষক ওশিক্ষাকর্মীরা।

তাঁকে গো ব্যাক ধ্বনি দিয়ে ব্ল্যাক পতাকাও দেখানো হয়। পরদিন অর্থাত্ মঙ্গলবার যাদবরপুরের সমাবর্তণ অনুষ্ঠানে একই ভাবে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্দরে। বাধ্য হয়ে টানা দেড় ঘন্টা পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে বেরিয়ে যান রাজ্যপাল। এমনি সমাবর্তণ অনুষ্ঠানের মঞ্চে রাজ্যপালের ফাঁকা চেয়ারের মধ্যেই অনুষ্ঠান এগিয়ে যায়।

তবে সেদিন আরও এক বিতর্কিত ঘটনাও ঘটেছিল। সিএএর কপি ছিঁড়ে ফেলেছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গোল্ট মেডেলিস্ট। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের অভিনব প্রতিবাদ করেছিলেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ওই পড়ুয়া।

সম্পর্কিত খবর