টাইমলাইনভারত

ঈদে মসজিদে নামাজ পড়ার অনুমতি চেয়ে কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি কংগ্রেস বিধায়কের

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ মারণ ভাইরাস করোনার জেরে সারা বিশ্ব তোলপাড়। এই ভাইরাসের জেরে মারা গিয়েছে অনেকে। পাশাপাশি আক্রান্তের সংখ্যাটাও কম নয়। এই ভাইরাসকে ঠেকাতে লকডাউন চলেছে। আর এতে রাস্তায় ভিড় করা বারণ। দূরত্ব বজায় রেখে কাজ করতে হবে। মুসলমানরা পবিত্র রমজান মাসে পুরোদমে ব্যর্থ হয়ে লকডাউন নির্দেশিকা অনুসরণ করেন। এবং ঘরেই সবাইকে নামাজ পড়ার আদেশ দেওয়া হয়েছে। কারণ দূরত্ব বজায় রেখে কাজ করতে হবে। তাহলে সংক্রমণ এড়ানো যাবে। ঈদে মসজিদে নামাজ পড়ার অনুমতি চেয়ে কর্ণাটকের (Karnataka) মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি কংগ্রেস (Congress)  বিধায়কের।

কংগ্রেস বিধায়ক এন.এ হারিস (NA Haris ) কর্ণাটকের সিএম বিএস ইয়েদিউরপ্পাকে চিঠি দেন। চিঠিতে তিনি বলেন, রমজানের জন্য সর্বসাধারণের প্রার্থনা করার অনুমতি চেয়েছিলেন। তিনি বলছেন যে বিশেষজ্ঞদের কোন মতামত না রেখে সম্ভব হলেই সরকারকে প্রার্থনার অনুমতি দেওয়া উচিত। অন্যান্য রাজনীতিবিদরা এর আগে রমজান ও জন প্রার্থনার বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠিও দিয়েছেন।

ঈদদের জন্য সর্বসাধারণের প্রার্থনা করার অনুমতি দেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকে অনুরোধ করার পরে বিতর্কিত হয়ে যাওয়ার এক সপ্তাহ পরেই কংগ্রেসের আরেক নেতা এনএ হারিস মামলা করেছেন। হারিস, ১৫ ই মে তারিখের চিফ মিনিস্টারে বিএস ইয়েদিউরপ্পাকে সম্বোধন করা চিঠিতে লিখেছেন, সম্ভব হলে ঈদের জন্য জনসাধারণের প্রার্থনা বিবেচনা করার আহ্বান জানিয়েছেন।  মুসলমানরা পবিত্র রমজান মাসে পুরোদমে ব্যর্থ হয়ে লকডাউন নির্দেশিকা অনুসরণ করে এবং ঘরে ঘরে নামাজ সীমাবদ্ধ করেছে। ঈদে মসজিদে নামাজ পড়ার অনুমতি চেয়ে কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি কংগ্রেস বিধায়কের।

শান্তিনগর বিধায়করা রাজ্য সরকারকে বিশেষজ্ঞদের এবং চিকিত্সা স্বাস্থ্য পেশাদারদের সাথে পরামর্শ করতে হয়। এবং ইদের জন্য মসজিদে নামাজের অনুমতি দেওয়ার বিষয়ে বিবেচনা করার জন্য বলেছেন।

Related Articles

Back to top button