টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

জল কামানে মেশানো ছিল করোনার জীবাণু! তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ বিজেপির

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ গত বৃহস্পতিবার নবান্ন অভিযানের ডাক দিয়েছিল বিজেপি (Bharatiya Janata Party)। এখন অভিযোগ উঠেছে, মিছিল আটকাতে ব্যবহৃত জল কামানের রাসায়নিকে মেশানো হয়েছিল করোনা ভাইরাস (COVID-19)। যার জন্য বর্তমানে বহু বিজেপি কর্মী করোনা আক্রান্ত হয়ে পড়েছেন।

উপস্থিত ছিলে প্রথম সারির বেশ কয়েকজন নেতৃত্ব
বিজেপির এই অভিযান সফল করতে সেদিন কলকাতায় (kolkata) এসেছিলেন যুব মোর্চার সর্বভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য। উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়, রাকেশ সিং ও শঙ্কুদেব পণ্ডা, যুবমোর্চার সভাপতি সৌমিত্র খাঁ, সায়ন্তন বসু ও রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় সহ আরও অন্যান্যরা।

বিজেপির অভিযোগ
বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছিল, সেদিনের নবান্ন অভিযানে পুলিশ বর্বরোচিত নির্যাতন করেছে বিজেপি কর্মীদের উপর। মিছিল আটকাতে জায়গায় জায়গায় কাদুনে গ্যাস, লাঠিচার্জ এমনকি জল কামানও ব্যবহার করা হয়। বিজেপির তরফ থেকে অভিযোগ এসেছে, এই জলকামানে রাসায়নিক কেমিকেল ব্যবহার করাও হয়েছিল। কিন্তু তাদের অভিযোগ অস্বীকার করেছে নবান্ন।

বিজেপির এই মিছিলে একসঙ্গে অনেক মানুষের জমায়েত হওয়ায় মান্য হয়নি সামাজিক দূরত্ব। মিছিলে অনেকেই মাস্ক পরিহিত ছিলেন না। ফলে করোনা আবহে করোনা আক্রান্তের একটা আশঙ্কা করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা।

জল কামানে মেশানো ছিল করোনা ভাইরাস!
আশঙ্কাই সত্যি হয়ে দাঁড়াল। এই অভিযান শেষে বেশ কয়েকজন বিজেপি সদস্য করোনা আক্রান্ত হয়ে পড়েছেন।তবে বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, জল কামানের রাসায়নিকে করোনা ভাইরাস মেশানো ছিল। যার ফলে আক্রান্ত হয়ে পড়ে বহু কর্মী।

এবিষয়ে তৃণমূল (All India Trinamool Congress) মন্তব্য করেছে, ‘যাদের কোন কাজ নেই, তারাই বাংলাকে ছোট করতে এসব দেখাচ্ছে।’ এদিকে আবার মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস দাবি করেছেন, ‘আমাদের পুলিশ সমস্ত নিয়ম-রীতি মেনেই কাজ করেছে।’

Back to top button