টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

তিহার যাওয়া কী সময়ের অপেক্ষা মাত্র? কেষ্টর কষ্ট বাড়িয়ে জামিনের আবেদন খারিজ দিল্লির আদালতের

বাংলা হান্ট ডেস্ক : নিস্তার নেই অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mandal)। গরুপাচারকাণ্ডে আরও একবার খারিজ হল তৃণমূল নেতার জামিনের আবেদন। মঙ্গলবার দিল্লির রাউস অ্যাভিনিউ আদালত অনুব্রতর আবেদন খারিজ করে দেয়। ফলে অনুব্রতকে এখনও দিল্লি নিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ মহল।

গত শনিবার অনুব্রতর জামিনের আবেদনের শুনানি হয় রাউস অ্যাভিনিউ আদালতের বিচারক রঘুবীর সিংয়ের এজলাসে। এদিন অনুব্রতর আইনজীবী বলেন, গত ১৭ নভেম্বর অনুব্রতকে গ্রেফতার করে ইডি। দেখতে দেখতে কেটে গিয়েছে ৬০ দিন। কিন্তু এখনও তার বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ করতে পারেনি কেন্দ্রীয় সংস্থা। অনুব্রতর বিরুদ্ধে যে সমস্ত ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে তাতে এতদিনে তার জামিন পাওয়া উচিত।

অপরদিকে, ইডির আইনজীবী বলেন, রাউস অ্যাভিনিউ আদালত ইডির আবেদনের ভিত্তিতে অনুব্রতর বিরুদ্ধে প্রোডাকশন ওয়ারেন্ট জারি করেছিল। সেই ওয়ারেন্ট এখনো কার্যকর করতে পারেনি ইডি। ওয়ারেন্ট পড়ে রয়েছে আসানসোল জেলের সুপারের টেবিলেই। অনুব্রতকে যখন হেফাজতেই পাওয়া যায়নি তখন তদন্ত এগোবে কোন উপায়ে?আর চার্জশিটই বা কী ভাবে দেওয়া সম্ভব? দুপক্ষের বক্তব্য শুনে শনিবার রায়দান স্থগিত রাখেন বিচারক।

anubrata mandal

আজ মঙ্গলবার অনুব্রতর জামিনের মামলা খারিজ করে জামিনের আবেদন নাকচ করে দেন বিচারক রঘুবীর সিং। আরও একবার নিম্ন আদালতে অনুব্রতর জামিনের আবেদন বাতিল হয়ে যাওয়া তাঁর তিহাড় যওয়া একরকম নিশ্চিত হয়ে উঠল বলেই মনে করছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ মহল।

দিল্লির একটি নিম্ন আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন অনুব্রত মণ্ডল। গরু পাচার কাণ্ডে ধৃত এই তৃণমূল নেতাকে দিল্লিতে নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চাইছে কেন্দ্রীয় সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। সেই সূত্রেই ইডি দিল্লির রাউস অ্যাভিনিউ কোর্টে আবেদন জানায়। আদালত অনুব্রতকে দিল্লিতে নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের আবেদন মঞ্জুর করে। সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করেই দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন অনুব্রত মণ্ডল।

Related Articles