টাইমলাইনআন্তর্জাতিক

বড় খবরঃ ডোনাল্ড ট্রাম্পের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট পাকাপাকিভাবে বন্ধ করল Twitter কর্তৃপক্ষ

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ প্রথমে ওয়ার্নিং দিলেও এবার পাকাপাকিভাবে বন্ধ করা হল প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের (Donald Trump) ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট (Twitter account)। বর্তমান সময়ে উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে ক্যাপটাল। নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পরও নিজের গদি ছাড়তে নারাজ ছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিছুতেই হোয়াইট হাউসের দায়িত্ব তুলে দিতে চাইছিলেন না নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বিডেনের হাতে। এই নিয়ে উত্তাল হয়ে উঠেছিল ওয়াশিংটন ডিসি।

বর্তমান সময়ে ট্রাম্প সমর্থকরা ক্যাপিটালের সামনে প্রতিবাদে নেমেছিল। ট্রাম্পকে সমর্থন করে তারা কোনমতেই বিডেনের জয়লাভকে সমর্থন করতে পারছিল না। বিভিন্ন সময়ে রাস্তায় বিভিন্ন প্রতিবাদী মিছিল, সমাবেশের পর হাউস অব রিপ্রেসেন্টেটিভ ও সেনেটের বৈঠক চলছিল ঠিক সেই সময় ট্রাম্প সমর্থকরা বুধবার ক্যাপিটল বিল্ডিংয়ে হামলা চালায়।

Biz trump 1014100170 Bangla Hunt Bengali News

একপ্রকার জোর করেই সেখানে ঢুকে পড়ে ট্রাম্প সমর্থকরা। সেখানে পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ চলে। কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়া হয়। সংঘর্ষের মাঝে সেখানে প্রতিবাদরত ৪ জনের মৃত্যুও হয়। ট্রাম্প তাঁর সমর্থকের উৎসাহ দেওয়ার জন্য সেইসকল ভিডিও আবার নিজের সকল স্যোশাল মিডিয়া অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ারও করেছিলেন।

হিংসাত্মক পোস্ট করায় পূর্বেই ট্রাম্পের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছিল ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। তবে ট্যুইটার কর্তৃপক্ষ ১২ ঘণ্টার সময় দিয়ে জানিয়েছিল, ‘ক্যাপিটালে হিংসাত্মক ঘটনার তিনটি ভিডিও অবিলম্বে ট্যুইটার থেকে সরানোর নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে এবং ১২ ঘণ্টার জন্য ট্রাম্পের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ রাখা হচ্ছে। অন্যথায় অ্যাকাউন্টটি স্থায়ী ভাবে বন্ধ করে দেওয়া হবে’। এমনকি ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টও ২৪ ঘন্টার জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

তবে এবার এক কড়া সিদ্ধান্ত নিল ট্যুইটার কর্তৃপক্ষ। পাকাপাকিভাবে বন্ধ করে দিল ডোনাল্ড ট্রাম্পের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট। ভবিষ্যতে ফের হিংসার জন্ম দিতে পারে ডোনাল্ড ট্রাম্পের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট, এমনটা দাবি জানিয়ে ট্রাম্পের ট্যুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয় ট্যুইটার কর্তৃপক্ষ।

Back to top button